পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


e: রবীন্দ্র-রচনাবলী আজ উংসবের স্বরে তারা মরে ঘুরে ঘুরে ; বাতাসেরে করে যে উদাস । তাদের পরশ পায়, কী মায়াতে ভরে যায় প্রভাতের স্নিগ্ধ অবকাশ । তাদের চমক লাগে চম্পকশাখায়, কাপে তারা মৌমাছির গুঞ্জিত পাখায়, সেতারের তারে তারে মূছনায় তাদের আভাস বাতাসেরে করিল উদাস । কালস্রোতে এ অকুলে আলোচ্ছায়া দুলে দুলে চলে নিত্য অজানার টানে । শি কেন রহি রহি সে-আহবান আনে বহি? আজি এই উল্লাসের গানে ? চঞ্চলেরে শুনাইছে স্তব্ধতার ভাষা, যার রাত্রি-নীড়ে আসে যত শঙ্কা আশা । বাশি কেন প্রশ্ন করে, “বিশ্ব কোন অনন্তের পানে চলে নিত্য অজানার টানে ?” যায় যাক, যায় যাক, আস্থক দূরের ডাক, - যাক ছিড়ে সকল বন্ধন । চলার সংঘাত-বেগে ংগীত উঠক জেগে আকাশের হৃদয়-নন্দন । মুহূর্তের নৃত্যচ্ছন্দে ক্ষণিকের দল যাক পথে মত্ত হয়ে বাজায়ে মাদল ; অনিত্যের স্রোত বেয়ে যাক ভেসে হাসি ও ক্ৰন্দন, যাক ছিড়ে সকল বন্ধন । कांस्तुन, S७७०