পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্বিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


जांनाहे মেয়েতে মেয়েতে আছে বাজি-রাখার পণ ভিতরে ভিতরে । । কটাক্ষে সে চাইল আমায়, তারে চাইলুম আমি, পাশা ফেলল নিপুণ হাতের ঘুরুনিতে, এক দানেতেই হল তারি জিত। জিত ? কে জানে তাও সত্য কি না । কে জানে তা নয় কি তারি দারুণ হারের পালা । সেদিন আমি মনের ক্ষোভে বলেছিলুম কপালে কর হানি, চিনব বলে এলেম কাছে হল বটে নিংড়ে নিয়ে চেনা চরম বিকৃতিতে । কিন্তু তবু ধিক্ আমারে, যতই দুঃখ পাই পাপ যে মিথ্যে কথা । আপনাকে তো ভুলিয়েছিলুম যেই তোমারে এলেম ভোলাবারে ; ঘুলিয়ে-দেওয়া ঘূর্ণিপাকে সেই কি চেনার পথ । আমার মায়ার জালটা ছিড়ে অবশেষে আমায় বঁাচালে যে ; আবার সেই তো দেখতে পেলেম আজো তোমার স্বপ্নঘোড়ায়-চড়া নিত্যকালের সন্ধান সেই মানসম্বন্দরীকে সীমাবিহীন তেপান্তরের মাঠে । দেখতে পেলেম ছবি, , এই বিশ্বের হৃদয়মাঝে বলে আছেন অনির্বচনীয়া, তুমি তারি পায়ের কাছে বাজাও তোমার র্যাশি। এ-সব কথা শোনাচ্ছে কি সাজিয়ে-বলার মতো । oసి