পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্বিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বঁশিরি । Ꮌ©Ꮼ শচীন । ঐ-যে নববার্তা কাগজের গল্পলিখিয়ে ক্ষিতীশ । তারক। ওর লেখা একটাও পড়ি নি, সেইজম্ভে অসীম শ্রদ্ধা করি । শচীন। পড় নি ওর নূতন বই বেমানান ? বিলিতিমার্ক নব্যবাঙালিকে মুচড়ে মুচড়ে নিংড়েছে। অরুণ। দূরে বসে কলম চালিয়েছে, ভয় ছিল না মনে । কাছে এসেছে এইবারে বুঝবে, নিংড়ে ধবধবে সাদা করতে পারি আমরাও। তার পরে চড়াতে পারি গাধার পিঠে । অর্চনা। ওর ছোওয়া বাচাতে চাও তোমরা, ওরই ভয় তোমাদের ছোওয়াকে । দেখছ ন— দূরে বসে আইডিয়ার ডিমগুলোতে তা দিচ্ছে? সতীশ । ও হল সাহিত্যরখী, আমরা পায়ে-হাটা পেয়াদা, মিলন ঘটবে কী উপায়ে । শচীন ৷ ঘটকী আছেন স্বয়ং তোমার বোন বঁাশরি। হাইব্রে দার্জিলিং আর ফিলিস্টাইন সিলিগুড়ি, এর মধ্যে উনি রেল-লাইন পাতছেন। এখানে ক্ষিতীশের নেমস্তন্ন তারই চক্রান্তে । সতীশ । তাই নাকি । তা হলে ভগবানের কাছে হতভাগার আত্মার জন্তে শান্তি কামনা করি । আমার বোনকে এখনো চেনেন না । শৈলবালা । তোমরা যাই বল, আমার কিন্তু ওর উপরে মায়া হয় । <সতীশ । কোন গুণে । শৈল । চেহারাতে । শুনেছি, ছেলেবেলায় মায়ের বঁটির উপর পড়ে গিয়ে কপালে চোট লেগেছিল, তাই ঐ মস্ত কাটা দাগ। শরীরের খুত নিয়ে ওকে যখন ঠাটা কর, অামার ভালো লাগে না । * শচীন। মিস্ শৈল, বিধাতা তোমাকে নিখুত করেছেন তাই এত করুণা। কলির কোপ আছে যার চেহারায়, সে বিধাতার অরুপার শোধ তুলতে চায় বিশ্বের উপর। তার হাতে কলম যদি সরু করে কাটা থাকে তা হলে শতহস্ত দূরে থাকা শ্ৰেয় । ইংরেজ কবি পোপের কথা মনে রেখো । শৈল । আহা, তোমরা বাড়াবাড়ি করছ । সতীশ । শৈল, তোমার দরদ দেখে নিজেরই কপালে বঁটি মারতে ইচ্ছে করছে। শাস্ত্রে আছে মেয়েদের দয়া আর ভালোবাসা থাকে এক মহলে, ঠাইবদল করতে দেরি হয় না । 池 শচীন । তোমার ভয় নেই সতীশ, মেয়েরা অযোগ্যকেই দয়া করে।