পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্বিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বঁাশল্পি । ') && ক্ষিতীশ । ভুল করছেন আপনি । ‘রক্তজবা – ও-বইটা যতীন ঘটকের। লীলা । বলেন কী। ছি, ছি, এমন ভুলও হয় ! যতীন ঘটককে যে আপনি রোজ দু-বেলা গাল দিয়ে থাকেন। আমার এ কী বুদ্ধি। মাপ করবেন আমার অজ্ঞানকৃত অপরাধ। আপনার জন্তে আর-এক পেয়ালা চা পাঠিয়ে দিচ্ছি— রাগ করে ফিরিয়ে দেবেন না । [ লীলার প্রস্থান রাজাবাহাদুর সোমশংকরের প্রবেশ রাঘুবংশিক চেহারা শালপ্রাংশুরমহাভুজঃ রৌদ্রে পুড়ে ঈষৎ মান গৌরবর্ণ, ভারী মুখ দাড়িগোফ-কামানো, চুড়িদার সাদা পায়জামা, চুড়িদার সাদা আচকান, সাদা মসলিনের পাঞ্জাবি কায়দার পাগড়ি, শুড়তোলা সাদা নাগরাজুতো, দেহটা যে ওজনের কণ্ঠস্বরটাও তেমনি । সোমশংকর। ক্ষিতীশবাবু, বসতে পারি কি । ক্ষিতীশ । নিশ্চয় । সোমশংকর। আমার নাম সোমশংকর সিং । আপনার নাম শুনেছি মিস্ বঁাশরির কাছ থেকে । তিনি আপনার ভক্ত । ক্ষিতীশ । বোঝা কঠিন। অন্তত ভক্তিটা অবিমিশ্র নয়। তার থেকে ফুলের অংশ ঝরে পড়ে, কাটাগুলো দিনরাত থাকে বিধে । সোমশংকর। আমার দুর্ভাগ্য আপনার বই পড়বার অবকাশ পাই নি । তবু আমাদের এই বিশেষ দিনে আপনি এখানে এসেছেন, বড়ো কৃতজ্ঞ হলুম। কোনোএক সময়ে আমাদের শর্তুগড়ে আসবেন, এই আশা রইল। জায়গাটা আপনার মতো সাহিত্যিকের দেখবার যোগ্য । বঁাশরি। ( পিছন থেকে এসে ) ভুল বলছ শংকর, যা চোখে দেখা যায় তা উনি দেখেন না। ভূতের পায়ের মতে ওঁর চোখ উলটো দিকে। সে কথা যাক। শংকর, ব্যস্ত হোয়ো না । এখানে আজ আমার নেমস্তন্ন ছিল না। ধরে নিচ্ছি, সেটা আমার গ্রহের ভুল নয়, গৃহকর্তাদেরই ভুল। সংশোধন করতে এলুম। আজ স্বযমার সঙ্গে তোমার এনগেজমেণ্টের দিন, অথচ এ সভায় আমি থাকব না এ হতেই পারে না। খুশি হও নি অনাস্থত এসেছি বলে ? সোমশংকর। খুব খুশি হয়েছি, সে কি বলতে হবে। বঁাশরি। সেই কথাটা ভালো করে বলবার জন্তে একটু বোসে এখানে । ক্ষিতীশ,