পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্বিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$br8 ब्रवैौठझ-ज्ञाठमांदर्जौ পারবে। ঐ তোমার মূর্তিমান ধর্ম, রইল তোমার সঙ্গে— ধর্মে রক্ষতি রক্ষিতম্। আমার বন্ধন থেকে তুমি মুক্ত, সেই সঙ্গে শিন্যের বন্ধন থেকে আমিও মুক্তি পেলুম। তোমাদের বিবাহের পর আমাকে যেতে হবে দূরে— হয়তো কোনোদিন আমার আর দেখা পাবে না। আমার এই আশীৰ্বাদ রইল, জানখ আত্মানমূ- আপনাকে পূর্ণ করে জানে । [ পুরন্দরের প্রস্থান। সোমশংকর অনেকক্ষণ শুদ্ধ হয়ে রইল সোমশংকর। ওরে ভোলা, সেই নতুন গানটী— গান ব্যর্থ প্রাণের আবর্জনা পুড়িয়ে ফেলে আগুন জালো। একলা রাতের অন্ধকারে অামি চাই পথের আলো । দুন্দুভিতে হল রে কার আঘাত শুরু, বুকের মধ্যে উঠল বেজে গুরু গুরু, পালায় ছুটে মুপ্তিরাতের স্বপ্নে-দেখা মন্দ ভালো । নিরুদ্দেশের পথিক, অামায় ডাক দিলে কি— দেখতে তোমায় না যদি পাই নাই-বা দেখি । ভিতর থেকে ঘুচিয়ে দিলে চাওয়া পাওয়া, ভাবনাতে মোর লাগিয়ে দিলে ঝড়ের হাওয়া, বজ্রশিখায় এক পলকে মিলিয়ে দিলে সাদা কালো ॥ T নেপথ্য থেকে । যেতে পারি কি । সোমশংকর | এসো এসো । তারকের প্রবেশ তারক। রাজাবাহাদুর, আজকাল তোমার কাছে আসতে কিরকম ভয়-ভয় করে। সোমশংকর। কোনো কারণ তো দেখি নে । তারক। কারণ নেই বলেই তো ভয় বেশি। আজ বাদে কাল বিয়ে কিন্তু মনে হচ্ছে যেন দ্বীপান্তরে চলেছ । ভয়ানক গাম্ভীর্ষ । সোমশংকর । বিয়েটা তো এক লোক থেকে অন্ত লোকে যাত্রাই বটে। তারক। সব বিয়ে তা নয় রাজন নিজের কথা বলতে পারি। আমার বরযাত্রা হয়েছিল পটলডাঙা থেকে চোরবাগানে । মনের ভিতরটাও তার বেশি এগোয় নি।