পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


うSv রবীন্দ্র-রচনাবলী রাজা বলে, “এবে কাব্যকুজন আরম্ভ করে কবি ।” কবি তবে দুই কর জুড়ি বুকে বাণীবন্দনা করে নতমুখে, “প্রকাশে জননী, নয়ন-সমুখে প্রসন্ন মুখছবি । বিমল মানস-সরসবাসিনী শুক্লবসনা শুভ্ৰহাসিনী, বীণাগঞ্জিত মঞ্জুভাষিণী কমলকুঞ্জাসনা । তোমারে হৃদয়ে করিয়া আসীন স্বখে গৃহকোণে ধনমানহীন খ্যাপার মতন আছি চিরদিন উদাসীন আনমনা । চারি দিকে সবে বঁটিয়া দুনিয়া আপন অংশ নিতেছে গুনিয়া আমি তব স্নেহবচন শুনিয়া পেয়েছি স্বরগস্বধা । সেই মোর ভালো, সেই বহু মানি, তবু মাঝে মাঝে কেঁদে ওঠে প্রাণী, স্বরের খাদ্যে জান তো মা বাণী, নরের মিটে না ক্ষুধা । যা হবার হবে, সে-কথা ভাবি না, মা গো, একবার ঝংকারো বীণা, ধরহ রাগিণী বিশ্বপ্লাবিনা অমৃত-উৎসধারা । যে রাগিণী:শুনি নিশিদিনমান বিপুল হর্ষে দ্রব ভগবান মলিন মর্ত্যমাঝে বহমান নিয়ত আত্মহারা ।