পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোনার তরী এক গিরি হতে দুই স্রোত-পার। দুইটি শীর্ণ বিদ্বেষধারা সরীস্বপগতি মিলিল তাহারা নিষ্ঠুর অভিমানে— দেখিতে দেখিতে হল উপনীত ভারতের যত ক্ষত্র-শোণিত, ত্ৰাসিত ধরণী করিল ধ্বনিত প্রলয়বন্তা-গানে । দেখিতে দেখিতে ডুবে গেল কুল, আত্ম ও পর হয়ে গেল ভুল, গৃহবন্ধন করি নিমূল ছুটিল রক্তধারা, ফেনায়ে উঠিল মরণাম্বুধি, বিশ্ব রহিল নিশ্বাস রুধি, কঁাপিল গগন শত আঁখি মুদি নিবায়ে স্বর্যতারা । সমরবন্যা যবে অবসান সোনার ভারত বিপুল শ্মশান, রাজগৃহ যত ভূতল-শয়ান পড়ে আছে ঠাই ঠাই,— ভীষণ শাস্তি রক্তনয়নে বসিয়া শোণিত-পঙ্কশয়নে, চাহি ধরাপানে আনত বয়নে মুখেতে বচন নাই । বহুদিন পরে ঘুচিয়াছে খেদ, মরণে মিটেছে সব বিচ্ছেদ, সমাধা যজ্ঞ মহানরমেধ বিদ্বেষ-হুতাশনে । সকল কামনা করিয়া পূর্ণ, সকল দম্ভ করিয়া চুর্ণ, ১২৩