পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


98२ রবীন্দ্র-রচনাবলী খেলা হোক খেলা, এ খেলায় যোগ দিতে হবে আনন্দকল্লোলাকুল নিখিলের সনে । সব ছেড়ে মৌনী হয়ে কোথা বসে রবে আপনার অন্তরের অন্ধকার কোণে । জেনো মনে শিশু তুমি এ বিপুল ভবে অনন্ত কালের কোলে গগন-প্রাঙ্গণে, যত জান মনে কর কিছুই জান না। বিনয়ে বিশ্বাসে প্রেমে হাতে লহ তুলি বর্ণগন্ধগীতময় যে মহা-খেলনা তোমারে দিয়াছে মাতা ; হয় যদি ধূলি হোক ধূলি, এ ধূলির কোথায় তুলনা। থেকে না অকালবৃদ্ধ বসিয়া একেলা, কেমনে মানুষ হবে না করিলে খেলা । বন্ধন বন্ধন ? বন্ধন বটে, সকলি বন্ধন স্নেহ প্রেম স্থখতৃষ্ণ ; সে ষে মাতৃপাণি স্তন হতে স্তনাস্তরে লইতেছে টানি, নব নব রসস্রোতে পূর্ণ করি মন সদা করাইছে পান। স্তম্ভের পিপাসা কল্যাণদায়িনীরূপে থাকে শিশুমুখে— তেমনি সহজ তৃষ্ণ আশা ভালোবাসা সমস্ত বিশ্বের রস কত মুখে দুখে করিতেছে আকর্ষণ, জনমে জনমে । প্রাণে মনে পূর্ণ করি গঠতেছে ক্রমে দুর্লভ জীবন ; প্রলে পলে নব আশ নিয়ে যায় নব নব আস্বাদে আশ্রমে ।