পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S88 রবীন্দ্র-রচনাবলী ধীরে ধীরে চলে যাবে দূর হতে দূরে অখিল ক্ৰন্দন হাসি আঁধার আলোক, বহে যাবে শূন্তপথে সকরুণ স্বরে অনন্ত জগৎভরা ষত দুঃখশোক । বিশ্ব যদি চলে যায় কাদিতে কাদিতে আমি একা বসে রব মুক্তি-সমাধিতে ? অক্ষমা যেখানে এসেছি আমি, আমি সেথাকার, দরিদ্র সন্তান আমি দীন ধরণীর । জন্মাবধি যা পেয়েছি সুখদুঃখভার বহু ভাগ্য বলে তাই করিয়াছি স্থির। অসীম ঐশ্বর্যরাশি নাই তোর হাতে হে শু্যামলা সর্বসহ জননী মৃন্ময়ী । সকলের মুখে অন্ন চাহিস জোগাতে, পারিসনে কত বার,– কই অল্প কই, কাদে তোর সস্তানেরা মান শুষ্ক মুখ ;— জানি মা গো, তোর হাতে অসম্পূর্ণ স্থখ, যা-কিছু গড়িয়া দিস ভেঙে ভেঙে যায়, সব তাতে হাত দেয় মৃত্যু সর্বভুক, সব আশা মিটাইতে পারিসনে হায় তা বলে কি ছেড়ে যাব তোর তপ্ত বুক । দরিদ্রো দরিদ্র বলিয়া তোরে বেশি ভালোবাসি হে ধরিত্রী, স্নেহ তোর বেশি ভালো লাগে, বেদনাকাতর মুখে সকরুণ হাসি, দেখে মোর মর্মমাঝে বড়ো ব্যথা জাগে ।