পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোড়ায় গলদ ミQ> বিনোদবিহারী । না, আমি তাকে একরকম বুঝিয়ে দিলুম— চন্দ্রকান্ত । যে, এখানে তিনি টি কতে পারবেন না ! তুমি সব পার। যদি বন্ধুত্ব রাখতে চাও তো ও-আলোচনায় আর কাজ নেই, তোমার যা কর্তব্য বোধ হয় তুমি কোরো। নিমাই ভাই, তোমার সে-কথাটা মনে রইল— আগে একবার নিজের শ্বশুরবাড়িটা ঘুরে আসি তার পরে বেশ উৎসাহের সঙ্গে কাজটায় লাগতে পারব । বিহু, আজ আমার মনটা কিছু অস্থির আছে, আজ আর থাকতে পারছিনে— কাল তোমার বাসায় এক বার যাওয়া যাবে । [ প্রস্থান নলিনাক্ষ । চলো ভাই বিহু, আমরা দু-জনে মিলে গোলদিঘির ধারে বেড়াতে যাইগে । বিনোদবিহারী । আমার এখন গোলদিঘি বেড়াবার শখ নেই নলিন । সেখানে যখন যাব একেবারে দড়ি-কলসি হাতে করে নিয়ে যাব । নলিনাক্ষ । কেন ভাই, অনর্থক তুমি ও রকম মন খারাপ করে রয়েছ ? একে তো এই পোড়া সংসারে যথেষ্ট অমুখ আছে তার পরে আবার— বিনোদবিহারী । বন্ধু লাগলে আরো অসহ্য হয়ে ওঠে । নলিনাক্ষ । কী করলে তোমার দগ্ধ হৃদয়ে আমি একটুখানি সাত্বনা দিতে পারি ভাই । বিনোদবিহারী । নলিন, তোর দুটি পায়ে পড়ি আমাকে সাত্বনা দেবার জন্যে এত অবিশ্রাম চেষ্টা করিসনে, মাঝে মাঝে একটু একটু ইপি ছাড়তে দিস । নলিনাক্ষ । তুমি এখন কোথায় যাচ্ছ ? বিনোদবিহারী । বাড়ি যাচ্ছি । নলিনাক্ষ । তবে আমিও তোমার সঙ্গে যাই । এখন তুমি সেখানে একলা, মনে করছি কিছু দিন তোমার সঙ্গে একত্র থেকে— বিনোদবিহারী । না না, আমি শীঘ্রই আমার স্ত্রীকে ঘরে আনছি— নলিন, আজ ভাই তুমি চন্দরকে নিয়ে গোলদিঘিতে বেড়াতে যাও— আমাকে একটু ছুটি नििटङहे इटघ्छ । নলিনাক্ষ । ( সনিশ্বাসে ) তবে বিদায় ভাই ! কিন্তু এই শেষ কথা বলে যাচ্ছি, র্যাদের তুমি তোমার প্রাণের বন্ধু বলে জান, তারা তোমাকে হয়তো এক কথায় ত্যাগ করতে পারেন। কিন্তু নলিনাক্ষ তোমাকে কখনোই ছাড়বে না । বিনোদবিহারী । সে আমি খুবই জানি নলিন । নলিনাক্ষ। আর-এটা নিশ্চয় মনে রেখো, তুমি যা কর আমি তোমার পক্ষে আছি । [ প্রস্থান