পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


९१० রবীন্দ্র-রচনাবলী নিমাই। এমন নিষ্ঠুর আদেশ কেন করছেন । চোদটা অক্ষরের জায়গায় সতেরোটা বসানো কি এমনি গুরুতর অপরাধ যে সে জন্তে ভৃত্যকে একেবারে – ইন্দুমতী । না, সে অপরাধ আমি সহস্ৰ বার মার্জন করতে পারি কিন্তু ইন্দুমতীকে কাদম্বিনী বলে ভূল করলে আমার সহ হবে না— নিমাই। আপনার নাম তবে— |* ইন্দুমতী । ইন্দুমতী । তার প্রধান কারণ আপনার বাপ-মা যেমন আপনার নাম রেখেছেন নিমাই, তেমনি আমার বাপ-মা আমার নাম রেখেছেন ইন্দুমতী । নিমাই। হায় হায়, আমি এতদিন কী ভূলটাই করেছি। বাগবাজারের রাস্তায় রাস্তায় বৃথা ঘুরে বেড়িয়েছি, বাবা আমাকে উঠতে বসতে দু-বেলা বাপান্ত করেছেন, কাদম্বিনী নামটা ছন্দের ভিতর পুরতে মাথা ভাঙাভাঙি করেছি— (মৃদুস্বরে ) যেমনি আমায় ইন্দু প্রথম দেখিলে কেমন করে চকোর বলে তখনি চিনিলে— কিংবা কেমন করে চাকর বলে তখনি চিনিলে আহা সে কেমন হত ! ইন্দুমতী । তবে, এখন ভ্রম সংশোধন করুন— এই নিন আপনার খাতা । আমি চললুম। [ প্রস্থানোস্থ্যম নিমাই । আপনারও বোধ হচ্ছে যেন একটা ভ্রম হয়েছিল— সেটাও অনুগ্রহ করে সংশোধন করে নেবেন— আপনার একটা স্থবিধে আছে, আপনাকে আর সেই সঙ্গে ছন্দ বদলাতে হবে না । [ ইন্দুমতীর প্রস্থান নিবারণের প্রবেশ নিবারণ। দেখে বাপু, শিবু আমার বাল্যকালের বন্ধু— আমার বড়ো ইচ্ছে তার সঙ্গে আমার একটা পারিবারিক বন্ধন হয়। এখন তোমাদের ইচ্ছের উপরেই সমস্ত নির্ভর করছে । নিমাই । আমার ইচ্ছের জন্যে আপনি কিছু ভাববেন না, আপনার আদেশ পেলেই আমি কৃতার্থ হই । নিবারণ । (স্বগত) যা মনে করেছিলুম তাই। বুড়ো বাপ মাথা খোড়াখুড়ি করে যা করতে না পারলে, একবার ইন্দুকে দেখবামাত্র সমস্ত ঠিক হয়ে গেল । বুড়োরাই শাস্ত্র মেনে চলে— যুবোদের শাস্ত্রই এক আলাদা – তা বাপু, তোমার কথা