পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


& ex রবীন্দ্র-রচনাবলী আর রাগ নাই – বিনোদিনীর ডান হাত ধরিয়া তিনি কহিলেন, “বউ, তোমা হইতে কাহারও মন্দ না হউক, তুমিও ভাল থাকে৷ ” বিনোদিনী । তোমার আশীর্বাদ মিথ্যা হইবে না, পিসিমা । আমি তোমার প৷ ছু ইয়া বলিতেছি আমা হইতে এ-সংসারের মন্দ হইবে না। অন্নপূর্ণাকে বিনোদিনী ভূমিষ্ঠ হইয়া প্রণাম করিয়া খাইতে গেল। খাইয়া আসিলে পর রাজলক্ষ্মী তাহার দিকে চাহিয়া কহিলেন, “বউ, এখন তবে তুমি চলিলে ?” বিনোদিনী । পিসিমা, আমি তোমার সেবা করিব । ঈশ্বর সাক্ষী, আমা হইতে তুমি কোনো অনিষ্ট আশঙ্কা করিয়ো না। রাজলক্ষ্মী বিহারীর মুখের দিকে চাহিলেন । বিহার একটু চিস্তা করিয়া কহিল, “বোঠান থাকুন মা, তাহাতে ক্ষতি হইবে না।” রাত্রে বিহারী, বিনোদিনী এবং অন্নপূর্ণ তিন জনে মিলিয়া রাজলক্ষ্মীর শুশ্রুষা করিলেন । এদিকে অাশা সমস্তরাত্রি রাজলক্ষ্মীর ঘরে আসে নাই বলিয়া লজ্জায় অত্যস্ত প্রত্যুষে উঠিয়াছে। মহেন্দ্রকে বিছানায় স্থপ্ত অবস্থায় রাখিয়া তাড়াতাড়ি মুখ ধুইয়া কাপড় ছাড়িয়া প্রস্তুত হইয়া আসিল । তখনো অন্ধকার একেবারে যায় নাই । রাজলক্ষ্মীর দ্বারের কাছে আসিয়া যাহা দেখিল, তাহাতে আশা অবাক হইয়া গেল । ভাবিল, “এ কি স্বপ্ন ?” বিনোদিনী একটি স্পিরিট ল্যাম্প জালিয়া জল গরম করিতেছে । বিহারী রাত্রে ঘুমাইতে পায় নাই তাহার জন্য চা তৈরি হইবে। আশাকে দেখিয়া বিনোদিনী উঠিয়া দাড়াইল । কহিল, “আজ আমি আমার সমস্ত অপরাধ লইয়া তোমার আশ্রয় গ্রহণ করিলাম— আর কেহ আমাকে দূর করিতে পারিবে না— কিন্তু তুমি যদি বল ‘ষাও তো আমাকে এখনই যাইতে হইবে।” আশা কোনো উত্তর করিতে পারিল না— তাহার মন কী বলিতেছে, তাও সে যেন ভালো করিয়া বুঝিতে পারিল না, অভিভূত হইয়া রহিল। বিনোদিনী কহিল, “আমাকে কোনোদিন তুমি মাপ করিতে পারিবে না— সে-চেষ্টাও করিয়ো না । কিন্তু আমাকে আর ভয় করিয়ো না । যে-কয়দিন পিসিমার দরকার হইবে, সেই কটা দিন আমাকে একটুখানি কাজ করিতে দাও, তার পরে আমি छलिम्नां झांझेद् ।* কাল রাজলক্ষ্মী যখন আশার হাত লইয়া মহেন্দ্রের হাতে দিলেন, তখন আশা তাহার মন হইতে সমস্ত অভিমান মুছিয়া ফেলিয়া সম্পূর্ণভাবে মহেক্সের কাছে