পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আত্মশক্তি ૭૨૭ করিতেছি এবং মনে করিতেছি, বাহ অবস্থা যদি দৈবক্রমে অন্তের মতো হয় তৰেই আমাদের সকল অভাব, সকল লঙ্গ দূর হইতে পারে। বিদেশের ইতিহাস যদি আমরা ভালো করিয়া পড়িয়া দেখি তবে দেখিতে পাইব, মহত্ব কত বিচিত্র প্রকারের— গ্রীসের মহত্ব এবং রোমের মহত্ব একজাতীয় নহে— গ্রীস বিস্তা ও বিজ্ঞানে বড়ো, রোম কর্মে ও বিধিতে বড়ো। রোম তাহার বিজয়-পতাকা লইয়া যখন গ্রীসের সংস্রবে আসিল তখন বাহুবলে ও কর্মবিধিতে জয়ী হইয়াও বিদ্যাবুদ্ধিতে গ্রীসের কাছে হার মানিল, গ্রীসের কলাবিদ্যা ও সাহিত্য-বিজ্ঞানের অল্পকরণে প্রবৃত্ত হইল, কিন্তু তবু সে রোমই রহিল, গ্রীস হইল না— সে আত্মপ্রকৃতিতেই সফল হইল, অমুকুতিতে নহে— সে লোকসংস্থানকার্বে জগতের আদর্শ হইল, সাহিত্যবিজ্ঞান-কলাবিদ্যায় হইল না । i. ইহা হইতে বুঝিতে হইবে, উৎকর্ষের একমাত্র আকার ও একমাত্র উপায় জগতে নাই। আজ যুরোপীয় প্রতাপের যে-আদর্শ আমাদের চক্ষের সমক্ষে অভ্ৰভেদী হইয়া উঠিয়াছে, উন্নতি তাহা ছাড়াও সম্পূর্ণ অন্য আকারে হইতে পারে— আমাদের ভারতীয় উৎকর্ষের যে-অাদর্শ আমরা দেখিয়াছি তাহার মধ্যে প্রাণসঞ্চার বলসঞ্চার করিলে জগতের মধ্যে আমাদিগকে লজ্জিত থাকিতে হইবে না। একদিন ভারতবর্ষ জ্ঞানের দ্বারা ধর্মের দ্বারা চীন-জাপান, ব্রহ্মদেশ-শু্যামদেশ, তিববত-মঙ্গোলিয়া, এশিয়া মহাদেশের অধিকাংশই জয় করিয়াছিল ; আজ যুরোপ অস্ত্রের দ্বারা বাণিজ্যের দ্বারা পৃথিবী জয় করিতে প্রবৃত্ত হইয়াছে— আমরা ইস্কুলে পড়িয়া এই আধুনিক যুরোপের প্রণালীকেই যেন একমাত্র গৌরবের কারণ বলিয়া মনে না করি । কিন্তু ইংরেজের বাহুবল নহে– ইংরেজের ইস্কুল ঘরে-বাইরে, দেহে-মনে, আচারে বিচারে সর্বত্র আমাদিগকে আক্রমণ করিয়াছে । আমাদিগকে যে-সকল বিজাতীয় ংস্কারের দ্বারা আচ্ছন্ন করিতেছে তাহাতে অস্তত কিছুকালের জন্তও আমাদের আত্মপরিচয়ের পথ লোপ করিতেছে । সে-আত্মপরিচয় ব্যতীত আমাদের কখনোই আত্মোন্নতি হইতে পারে না । ভারতবর্ষের দেশীয় রাজ্যগুলির যথার্থ উপযোগিতা কী, তাহা এইবার বলিবার সময় উপস্থিত হইল । দেশবিদেশের লোক বলিতেছে, ভারতবর্ষের দেশীয় রাজ্যগুলি পিছাইয়া পড়িতেছে । জগতের উন্নতির যাত্রাপথে পিছাইয়া পড়া ভালো নহে, এ-কথা সকলেই স্বীকার করিবে, কিন্তু অগ্রসর হইবার সকল উপায়ই সমান মঙ্গলকর নহে। নিজের শক্তির দ্বারাই অগ্রসর হওয়াই যথার্থ অগ্রসর হওয়া— তাহাতে যদি মন্দগতিতে \ՉաԵ e