পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী অর্ধেক অঞ্চল পাতি বসাও যতনে পার্শ্বে তব ; স্বমধুর প্রিয় সম্বোধনে ডাকো মোরে, বলো, প্রিয়, বলো, প্রিয়তম ;— কুন্তল-আকুল মুখ বক্ষে রাখি মম হৃদয়ের কানে কানে অতি মৃদু ভাষে ংগোপনে বলে যাও যাহা মুখে আসে অর্থহারা ভাবে-ভরা ভাষা । অয়ি প্রিয়া, চুম্বন মাগিব যবে, ঈষৎ হাসিয়া বাকায়ে না গ্রীবাখানি, ফিরায়ো না মুখ, উজ্জল রক্তিমবর্ণ সুধাপূর্ণ সুখ রেখো ওষ্ঠাধরপুটে, ভক্ত ভৃঙ্গ তরে সম্পূর্ণ চুম্বন এক, হাসি স্তরে স্তরে সরস স্বন্দর ;–নবন্ধুট পুষ্পসম হেলায়ে বঙ্কিম গ্রীবা বৃস্ত নিরুপম মুখখানি তুলে ধোরে ; আনন্দ-আভায় বড়ো বড়ো দুটি চক্ষু পল্লব-প্রচ্ছায় রেখে মোর মুখপানে প্রশাস্ত বিশ্বাসে, নিতান্ত নির্ভরে । যদি চোখে জল আসে কঁাদিব দু-জনে ; যদি ললিত কপোলে মৃদু হাসি ভাসি উঠে, বসি মোর কোলে, বক্ষ বাধি বাহুপাশে, স্কন্ধে মুখ রাখি হাসিয়ো নীরবে অধ-নির্মীলিত আঁখি । যদি কথা পড়ে মনে তবে কলস্বরে বলে যেয়ো কথা, তরল আনন্দভরে নিবারের মতো, অধেক রজনী ধরি কত না কাহিনী স্মৃতি কল্পনালহরী মধুমাখা কণ্ঠের কাকলি । যদি গান ভালো লাগে, গেয়ো গান। যদি মুগ্ধপ্রাণ নিঃশব্দ নিস্তন্ধ শান্ত সম্মুখে চাহিয়া বসিয়া থাকিতে চাও, তাই রব প্রিয়া ।