পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ԳՓ রবীন্দ্র-রচনাবলী কোথাও না পাই সীমা । কোন বিশ্বপার আছে তব জন্মভূমি। সংগীত তোমার কত দূরে নিয়ে যাবে, কোন কল্পলোকে অামারে করিবে বন্দী, গানের পুলকে বিমুগ্ধ কুরঙ্গসম । এই যে বেদন, এর কোনো ভাষা আছে ? এই যে বাসনা, এর কোনো তৃপ্তি আছে ? এই যে উদার সমুদ্রের মাঝখানে হয়ে কর্ণধার ভাসায়েছ স্বন্দর তরণী, দশ দিশি অক্ষুট কল্লোলধ্বনি চির দিবানিশি কী কথা বলিছে কিছু নারি বুঝিবারে, এর কোনো কুল আছে ? সৌন্দৰ্য-পাথারে যে বেদনা-বায়ুভরে ছুটে মন-তরী, সে বাতাসে, কত বার মনে শঙ্কা করি ছিন্ন হয়ে গেল বুঝি হৃদয়ের পাল ; অভয় আশ্বাসভরা নয়ন বিশাল হেরিয়া ভরসা পাই ; বিশ্বাস বিপুল জাগে মনে— আছে এক মহা উপকুল এই সৌন্দর্যের তটে, বাসনার তীরে মোদের দোহার গৃহ । হাসিতেছ ধীরে চাহি মোর মুখে, ওগো রহস্যমধুরা। কী বলিতে চাহ মোরে প্রণয়বিধুরা সীমস্তিনী মোর, কী কথা বুঝাতে চাও। কিছু ব’লে কাজ নাই— শুধু ঢেকে দাও আমার সর্বাঙ্গমন তোমার অঞ্চলে, সম্পূর্ণ হরণ করি লহ গো সবলে