পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 রবীন্দ্র-রচনাবলী কঁাপিবে কেমন ? শ্রাবণে দিগন্তপারে যে গভীর স্নিগ্ধ দৃষ্টি ঘন মেঘভারে দেখা দেয় নব নীল অতি স্বকুমার, সে দৃষ্টি না জানি ধরে কেমন আকার নারীচক্ষে । কী সঘন পল্লবের ছায়, কী সুদীর্ঘ কী নিবিড় তিমির-আভায় মুগ্ধ অস্তরের মাঝে ঘনাইয়া আনে মুখবিভাবরী । অধর কী স্বধাদানে রহিবে উন্মুখ, পরিপূর্ণ বাণীভরে নিশ্চল নীরব । লাবণ্যের থরে থরে অঙ্গখানি কী করিয়া মুকুলি বিকশি অনিবার সৌন্দর্ষেতে উঠিবে উচ্ছসি নিঃসহ যৌবনে । জানি, আমি জানি, সর্থী, যদি আমাদের দোহে হয় চোখোচোখি সেই পরজন্ম-পথে— দাড়াব থমকি, নিদ্রিত অতীত কঁাপি উঠিবে চমকি লভিয়া চেতনা । জানি মনে হবে মম চিরজীবনের মোর ধ্রুবতারাসম চিরপরিচয়-ভরা ওই কালো চোখ । আমার নয়ন হতে লইয়া আলোক, আমার অন্তর হতে লইয়া বাসনা আমার গোপন প্রেম করেছে রচনা এই মুখখানি । তুমিও কি মনে মনে চিনিবে আমারে । আমাদের দুই জনে হবে কি মিলন । দুটি বাহু দিয়ে বালা কখনো কি এই কণ্ঠে পরাইবে মালা