পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী وVو لمد সন্ধ্যাতারা যায় যে চলে ভোরের তারায় জাগবে ব’লে, বলে সে, ‘ঘাই যাই যাই গো ।” মা। বাছা, তোমাকে ধরে রাখতে গেলেই হারাৰ। তুমি বইতে পারবে না আরামের বোঝা, সইতে পারবে না সেবার বন্ধন। আমি ভয় ক’রে অকল্যাণ করব না। ললাটে দেব শ্বেতচন্দনের তিলক, শ্বেত উষ্ণীষে পরাব শ্বেতকরবীর গুচ্ছ । যাই কুলদেবতার পুজো সাজাতে। সন্ধ্যার সময় আরতির কাজল পরাব চোখে । পথে দৃষ্টির বাধা যাবে কেটে । [ রাজমাতার প্রস্থান রাজপুত্র । গান হেরো, সাগর উঠে তরঙ্গিয়া বাতাস বহে বেগে । সূর্য যেথায় অস্তে নামে ঝিলিক মারে মেঘে । দক্ষিণে চাই, উত্তরে চাই, ফেনায় ফেনা, আর কিছু নাই, যদি কোথাও কুল নাহি পাই তল পাব তো তবু । ভিটার কোণে হুতাশমনে রইব না আর কতু । অকুল-মাঝে ভাসিয়ে তরী যাচ্ছি অজানায় । আমি শুধু একলা নেয়ে আমার শূন্ত নায় । नद नद*ोंदन-उ८द्र যাব দ্বীপে দ্বীপাস্তরে, নেব তরী পূর্ণ ক’রে অপূর্ব ধন যত— ভিখারি মন ফিরবে যখন ফিরবে রাজার মতো ।