পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাস্তিনিকেতন ৮ মাঘ, ১৩৪১ রবীন্দ্র-রচনাবলী ঝুমকোর ফুল ফোটে ভালে, চোরেও চায় না কোনোকালে, কানে ঝুমকেণর ফুল দামি । কৃত্রিম জিনিসেরই দাম, কৃত্রিম উপাধিতে নাম, জমকালো করেছি তো আমি অতএব মনে রেখে দড়ো, এ চিঠির দাম খুব বড়ো, যে-হেতুক বাড়িয়ে বলায় বাজারে তুলন। এর নেই— কেবলই বানানো বচনেই ভরা এ ষে ছলায় কলায় । পাল্লা যে দিবি মোর সাথে সে ক্ষমতা নেই তোর হাতে, তবুও বলিস প্রাণপণ বাড়িয়ে বাড়িয়ে মিঠে কথা— দাদামশায়ের বোকা মন । যা হোক, এ কথা চাই শোনা, তাড়াতাড়ি ছন্দে লিখে ন}, না হয় না হলে কবিবর— অন্থকরণের শরণহত আাছি অামি ভীষ্মের মতে, তাহে তুমি বাড়িয়ে না স্বর । যে ভাষায় কথা কয়ে থাক আদশ তারে বলে নগকো, আমার পক্ষে সে তো ঢের— flatter করিতে যদি পার গ্রাম্যতাদোষ যত তারো একটু পাব না আমি টের ।