পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সাহিত্যের পথে । 88% সৌন্দর্ষের অভিজ্ঞতায় একটা স্তর আছে, সেখানে সৌন্দৰ্য খুবই সহজ। ফুল স্বন্দর, প্রজাপতি স্বন্দর, ময়ুর স্বন্দর। এ সৌন্দর্ধ একতলাওয়ালা, এর মধ্যে সদর-অন্দরের রহস্ত নেই, এক নিমেষেই ধরা দেয়, সাধনার অপেক্ষ রাখে না। কিন্তু, এই প্রাণের ८कॉठेॉब्र वथन भएनब्र मांन cय८*, कब्रिटबब्र ग९टषद घटछे, उर्थन ७ब्र भश्ल ८व८फ़ बांग्र ; उर्थन সৌন্দর্ধের বিচার সহজ হয় না। যেমন মানুষের মুখ । এখানে শুধু চোখে চেয়ে সরাসরি রায় দিতে গেলে ভুল হবার আশঙ্কা। সেখানে সহজ আদর্শে যা অসুন্দর তাকেও মনোহর বলা অসম্ভব নয়। এমন-কি, সাধারণ সৌন্দর্যের চেয়েও তার আনন্দজনকতা হয়তো গভীরতর। ঠংবির টপ্পা শোনাবামাত্র মন চঞ্চল হয়ে থাকে, টোড়ির চৌতাল চৈতন্যকে গভীরতায় উদবুদ্ধ করে। ললিতলবঙ্গলভাপরিশীলন মধুর হতে পারে, কিন্তু "বসন্তপুষ্পাভরণং বহুস্তী” মনোহর। একটা কানের, আর-একটা মনের ; একটাতে চরিত্র নেই, লালিত্য আছে, আর-একটাতে চরিত্রই প্রধান । তাকে চিনে নেবার জন্তে অকুশীলনের দরকার করে । যাকে স্বন্দর বলি তার কোঠা সংকীর্ণ, যাকে মনোহর বলি তা বহুদূরপ্রসারিত। মন ভোলাবার জন্তে তাকে অসামান্ত হতে হয় না, সামান্ত হয়েও সে বিশিষ্ট । যা আমাদের দেখা অভ্যস্ত ঠিক সেইটেকেই যদি ভাষায় আমাদের কাছে অবিকল হাজির ক’রে দেয়, তবে তাকে বলব সংবাদ । কিন্তু, আমাদের সেই সাধারণ অভিজ্ঞতার জিনিসকেই সাহিত্য যখন বিশেষ ক’রে আমাদের সামনে উপস্থিত করে তখন সে আসে অভূতপূর্ব হয়ে, সে হয় সেই একমাত্র, আপনাতে আপনি স্বতন্ত্র । সস্তানস্নেহে কর্তব্যবিস্মৃত মানুষ অনেক দেখা যায়, মহাভারতের ধৃতরাষ্ট্র আছেন সেই অতি সাধারণ বিশেষণ নিয়ে। কিন্তু, রাজ্যাধিকারবঞ্চিত এই অন্ধ রাজা কবিলেখনীর নানা সূক্ষ্ম ম্পর্শে দেখা দিয়েছেন সম্পূর্ণ একক হয়ে । মোটা গুণটা নিয়ে তার সমজাতীয় লোক অনেক আছে, কিন্তু জগতে ধৃতরাষ্ট্র অদ্বিতীয় ; এই মামুষের একান্ততা তার বিশেষ ব্যবহারে নয়, কোনো আংশিক পরিচয়ে নয়, সমগ্রভাবে । কবির স্বষ্টিমন্ত্রে প্রকাশিত এই তার অনন্তসদৃশ স্বকীয় রূপ প্রতিভার কোন সহজ নৈপুণ্যে সম্পূর্ণ হয়ে উঠেছে, ক্ষুত্র সমালোচকের বিশ্লেষণী লেখনী তার অন্ত পাবে না। সংসারে অধিকাংশ পদার্থ প্রত্যক্ষত আমাদের কাছে সাধারণশ্রেণীভূক্ত । রাস্তা দিয়ে হাজার লোক চলে ; তারা যদিচ প্রত্যেকেই বিশেষ লোক তবু আমার কাছে তারা সাধারণ মানুষমাত্র, এক বৃহৎ সাধারণতার আস্তরণে তারা আবৃত, তারা অম্পই । আমার আপনার কাছে আমি স্থনিশ্চিত, আমি বিশেষ ; অন্ত কেউ যখন তার বিশি2ভ নিয়ে আসে তখন তাকে আমারই সমপর্যায়ে ফেলি, আনন্দিত হই।