পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8१२ ब्ररोौटज-ब्रछनांवली আজকাল আবার বাংলাদেশে তারই পাণ্টা ব্যাপার ঘটছে। এখন কেউ কেউ আক্ষেপ করে থাকেন যে, মাদ্রাজিরা বাঙালিদের চেয়ে ভালো ইংরাজি বলতে পারে। এই অপবাদ যেন আমরা মাথার মুকুট করে পরি। অাজকে প্রবাসের এই বঙ্গসাহিত্যসন্মিলনী হঠাৎ আত্মপ্রকাশের জন্ত উৎসুক হয়েছে ; এই আগ্রহের কারণ হচ্ছে, বাঙালি আপন প্রাণ দিয়ে একটি প্রাণবান সাহিত্যকে গড়ে তুলেছে। যেখানে বাংলার শুধু ভৌগোলিক অধিকার সেখানে সে মানচিত্রের সীমাপরিধিকে ছাড়াতে পারে না। সেখানে তার দেশ বিধাতার স্থষ্ট দেশ ; সম্পূর্ণ তার স্বদেশ নয়। কিন্তু, ভাষা-বস্থঙ্করাকে আশ্রয় করে যে মানসদেশে তার চিত্ত বিরাজ করে সেই দেশ তার ভূগীমানার দ্বারা বাধাগ্রস্ত নয়, সেই দেশ তার স্বজাতির স্বষ্ট দেশ। আজ বাঙালি সেই দেশটিকে নদী প্রান্তর পর্বত অতিক্রম করে স্থদুরপ্রসারিতরূপে দেখতে পাচ্ছে, তাই বাংলার সীমার মধ্য থেকে বাংলার সীমার বাহির পৰম্ভ তার আনন্দ বিস্তীর্ণ হচ্ছে । খও দেশকালের বাহিরে সে আপন চিত্তের অধিকারকে উপলব্ধি করছে । ইতিহাস পড়লে জানা যায় যে, ইংলণ্ডে ও স্কটুলণ্ডে এক সময়ে বিরোধের অস্ত ছিল না। এই দ্বন্দ্বের সমাধান কেমন করে হয়েছিল। শুধু কোনো একজন স্কটল্যাণ্ডের রাজপুত্রকে সিংহাসনে বসিয়ে তা হয় নি। আসলে যখন চ্যলার প্রভৃতি কবিদের সময়ে ইংরাজি ভাষা সাহিত্যসম্পদশালী হয়ে উঠল তখন তার প্রভাব বিস্তৃত হয়ে স্কটুলগুকে আকৃষ্ট করেছিল। সে-ভাষা আপন ঐশ্বর্ষের শক্তিতে স্কটল্যাণ্ডের বরমাল্য অধিকার করে নিয়েছিল। এমনি করেই দুই বিরোধী জাতি ভাষার ক্ষেত্রে একত্র মিলিত হল, জ্ঞানের ভাবের একই পথে সহযাত্রী হয়ে আত্মীয়তার বন্ধনকে অস্তরে স্বীকার করায় তাদের বাহিরের ভেদ দূর হল। দূরপ্রদেশৰালী বাঙালী যে বাংলভাষাকে অঁাকড়ে থাকতে চাচ্ছে, প্রবাসের ভাষাকে ৰে স্বীকার করে নিতে ইচ্ছে করছে না, তারও কারণ এই যে, সাহিত্যসম্পদশালী বাংলাভাষার শক্তি তার মনকে জিতে নিয়েছে। এই জন্তেই, সে যত দূরেই থাক, আপন ভাষার গৌরববোধের স্থত্রে বাংলার বাঙালির সঙ্গে তার ৰোগ স্বগভীর হয়ে রয়েছে। এই যোগকে ছেদন করতে তার ব্যথা বোধ হয়, একে উপলব্ধি করতে তার আনন্দ । বাল্যকালে এমন আলোচনাও আমি শুনেছি যে, বাঙালি যে বঙ্গভাষার চর্চায় মন দিয়েছে এতে করে ভারতীয় ঐক্যের অন্তরায় স্থষ্টি হচ্ছে। কারণ, ভাষার শক্তি বাড়তে थाकरण डांद्र नृ दकनष्क निषिण कब्र कठेिन श्ब्र । उषनकांब निम्न दक्रगाङ्ङिा बनि উৎকর্ষ লাভ না করত তৰে জাজকে হয়তো তার প্রতি মমতা ছেড়ে দিয়ে আমরা