পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী ט\ 5 6 সাহিত্যধর্ম বিচিত্রা ১৩৩৪ শ্রাবণ সাহিত্যে নবত্ব • প্রবাসী ১৩৩৪ আগ্রহায়ণ সাহিত্যবিচার প্রবাসী ১৩৩৬ কাতিক আধুনিক কাব্য পরিচয় ১৩৩৯ বৈশাখ সাহিত্যতত্ত্ব প্রবাসী ১৩৪১ বৈশাখ সাহিত্যের তাৎপর্ষ প্রবাসী ১৩৪১ ভাদ্র ‘বাস্তব’ ও ‘কবির কৈফিয়ত প্রবন্ধ দুইটির প্রথমসংস্করণে-মুদ্রিত চলতি ভাষার পাঠের পরিবর্তে ‘সবুজ পত্র মাসিকে প্রকাশিত সাধুভাষায়-লিখিত মূলপাঠ সংকলিত হইয়াছে। ‘বাস্তব’ প্রবন্ধের আরম্ভের নূতন অনুচ্ছেদটিও সবুজ পত্র’ হইতে । উক্ত প্রবন্ধটির গোড়াতেই রবীন্দ্রনাথ বলিয়াছেন যে, “আজকাল বাংলাদেশে কবির যে-সাহিত্যের স্বষ্টি করিতেছে তাহাতে বাস্তবতা নাই, তাহা জনসাধারণের উপযোগী নহে, তাহাতে লোকশিক্ষার কাজ চলিবে না” এমন কথা “একেবারে আমারই নাম ধরিয়া” কেহ কেহ প্রয়োগ করিতেছেন । এই প্রসঙ্গে শ্রীরাধাকমল মুখোপাধ্যায় মহাশয়ের ‘প্রবাসী’তে প্রকাশিত ( ১৩২১ জ্যৈষ্ঠ, পৃ ১৯৫-২০৩ ) ‘লোকশিক্ষক বা জননায়ক’ এবং ‘সবুজ পত্র মাসিক পত্রিকায় প্রকাশিত ( ১৩২১ মাধ, পৃ ৬৯৮-৭১ - ) সাহিত্যে বাস্তবতা প্রবন্ধ দুইটি দ্রষ্টব্য। ‘প্রবাসী'র প্রবন্ধটিতে লেখক স্ব-স্পষ্ট অভিযোগ করিয়াছিলেন যে, "রবীন্দ্রসাহিত্য সার্বজনীন নহে” ; “রবীন্দ্রনাথ দরিদ্রের ক্রনন শুনিয়াছেন। তিনি দৈন্তের মধ্যে ‘বিশ্বাসের ছবি আঁকিয়াছেন। তিনি মৃত্যুঞ্জয়ী আশার সংগীত গাহিয়াছেন। কিন্তু সে ছবি, সে সংগীত, জনসাধারণকে, সমগ্র জাতিকে, স্পর্শ করিতে পারে নাই ।” ‘সাহিত্য’, ‘তথ্য ও সত্য’ এবং ‘স্বষ্টি’— এই তিনটি প্রবন্ধ ১৩৩০ সালের ১৮, ১৯ ও ২ • ফাত্তন তারিখে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাক্রমে প্রদত্ত তিনটি বক্তৃত । সেনেট হলে বকৃত হইবার অব্যবহিত পরে প্রথম দুইটি বক্তৃতার জমুলিখন ‘সাহিত্যের মূলতত্ত্ব’ ও ‘সাহিত্যের রসতত্ত্ব’ নামে ১৩৩• ফাত্তনের পরিচারিকা’ পত্রিকায় সর্বাগ্রে বাহির হয় । তৃতীয় বক্তৃতাটি ‘সাহিত্য’ নামে ১৩৩১ বৈশাখের পল্পী শ্ৰী’তে প্রকাশিত ' হয় । ১৩৩১ সালে ‘প্রবাসী'র জ্যৈষ্ঠ ও আষাঢ় সংখ্যায় ‘কষ্টিপাথর" অংশ (পৃ ২০১-৮৩ ও ৩৪৮-৫২ ) এই প্রসঙ্গে দ্রষ্টব্য। সম্ভবত উক্ত অনুলিখন যথাযথ হয় নাই বিবেচনা করিয়া বঙ্গবাণী’র জন্ত রবীন্দ্রনাথ স্বয়ং বক্তৃতা তিনটি লিখিয়া

  • ** यांनौ'tठ थयटकब्र शृण मांब 'बांजौब्र छांब्रांब्रि' ২ রাধাকমল মুখোপাধ্যায় কতৃক প্রণীত বিতর্মান বাংলা সাহিত্য গ্রন্থে সংকলিত