পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী দ্বিতীয়বার মিষ্ট হাতের মিষ্ট অন্নে ভাগ্য অামার হয় যদি হোক বঞ্চিত, নিরতিশয় করব না শোক তাহার জন্তে ধ্যানের মধ্যে রইল ষে ধন সঞ্চিত । আজ বাদে কাল অাদর ষত্ব না হয় কমল, গাছ মরে যায় থাকে তাহার টবটা তো জোয়ারবেলায় কণনায় কানায় যে জল জমল ভাটার বেলায় শুকোয় না তার সবট। তো । অনেক হারাই, তবু যা পাই জীবনযাত্রা তাই নিয়ে তো পেরোয় হাজার বিস্মৃতি । রইল আশা, থাকবে ভরা খুশির মাত্রা যখন হবে চরম শ্বাসের নিঃস্থতি । বলবে তুমি, ‘বালাই ! কেন বকছ মিথ্যে, প্রাণ গেলেও যত্বে রবে অকুণ্ঠা ।” বুঝি সেটা, সংশয় মোর নেইকো চিত্তে, মিথ্যে খোটায় খোচাই তবু আগুনট । অকল্যাণের কথা কিছু লিখস্থ অত্র, বানিয়ে-লেখা ওটা মিথ্যে দুষ্ট,মি । তদুত্তরে তুমিও যখন লিখবে পত্র বানিয়ে তখন কোরো মিথ্যে রুষ্ট মি । ఏ లెన్స్ల్లో, S వెరిd নামকরণ দেয়ালের ঘেরে যারা গুহকে করেছে কারা, ঘর হতে আঙিনা বিদেশ,