পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ত্রয়োবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


tre রবীন্দ্র-রচনাবলী মানবশিরায় অার তরুর তত্ত্বতে, একই স্পন্দনের ছন্দ উভয়ের অণুতে অণুতে । সেই মৌনী বনম্পতি স্ববৃহৎ অালন্সের ছদ্মবেশে অলক্ষিতগতি স্বল্প সম্বন্ধের জাল প্রসারিছে নিত্যই আকাশে, মাটিতে বাতাসে, লক্ষ লক্ষ পল্লবের পাত্র লয়ে তেজের ভোজের পানালয়ে । বিনা কাজে আমিও তেমনি বসে থাকি ছায়ায় একাকী, আtলস্তের উৎস হতে চৈতন্তের বিবিধ দি শ্বাহী স্রোতে অামার সম্বন্ধ চরাচরে বিস্তারিছে অগোচরে কল্পনার স্বত্রে বোন জালে দূর দেশে দূর কালে । প্রাণে মিলাইতে প্রাণ সে বয়সে নাহি ছিল ব্যবধান ; নিরুদ্ধ করে নি পথ ভাবনার স্ত,প ; গাছের স্বরূপ সহজে অন্তর মোর করিত পরশ । অনাদৃত সে বাগান চায় নাই যশ উদ্যানের পদবীতে । তীরে চিনাইতে মালীর নিপুণতার প্রয়োজন কিছু ছিল নাকে । যেন কী আদিম স*াকে । ছিল মোর মনে বিশ্বের অদুখ্য পথে যাওয়ার আসার প্রয়োজনে । কুলগাছ দক্ষিণে কুয়োর ধারে, পুবদিকে নারিকেল সারে সারে,