পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফাল্গুনী S o & চন্দ্রহাস । এতবড়ো বাইরেট পত্তন করতে তো চন্দ্র সূর্য তার কম খরচ হয় নি, এটাকে আমরা যাদ কাজে লাগাই তবে বিধাতার মুখরক্ষা হবে। اسلام সর্দার । তোদের কথাটা কী হচ্ছে বল তো । কথাটা হচ্ছে এই— f মোদের যেমন খেলা তেমনি যে কাজ জানিস নে কি ভাই । সর্দার । খেলতে খেলতে ফুটেছে ফুল, খেলতে খেলতে ফল যে ফলে, খেলারই ঢেউ জলে স্থলে । ভয়ের ভীষণ রক্তরাগে খেলার আগুন যখন লাগে ভাঙাচোরা জ’লে যে হয় ছাই । সকলে । মোদের যেমন খেলা তেমনি যে কাজ জানিস নে কি ভাই ॥ আমাদের এই খেলাটাতেই দাদার আপত্তি। দাদা। কেন আপত্তি করি বলব ? শুনবি ? বলতে পার দাদা, কিন্তু শুনব কি না তা বলতে পারি নে । দাদা । সময় কাজেরই বিত্ত, খেলা তাহে চুরি। সিদ্ধ কেটে দণ্ডপল লহ ভূরি ভূরি। কিন্তু চোরাধন নিয়ে নাহি হয় কাজ । তাই তো খেলারে বিজ্ঞ দেয় এত লাজ । চন্দ্রহাস । বল কী তুমি দাদা । সময় জিনিসটাই যে খেলা, কেবল চলে যাওয়াই তার লক্ষ্য । দাদা। তা হলে কাজটা ? চন্দ্রহাস। চলার বেগে যে ধুলো ওড়ে কাজটা তাই, ওটা উপলক্ষ্য। দাদা। আচ্ছা সর্দার, তুমি এর নিম্পত্তি করে দাও। সর্দার। আমি কিছুরই নিষ্পত্তি করি নে। সংকট থেকে সংকটে নিয়ে চলি— ওই আমার সর্দারি ।