পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফাল্গুনী >ベ> দেশে দেশে নিন্দে রটে, পদে পদে বিপদ ঘটে, পুথির কথা কই নে মোর উলটো কথা কই । কোটাল। ওহে বাপু, তোমরা যে কোন সর্দারের কথা বলছিলে, সে গেল কোথায় । সে সঙ্গে থাকলে যে তোমাদের সামলাতে পারত। সে সঙ্গে থাকে না পাছে সামলাতে হয় । সে অামাদের পথে বের করে দিয়ে নিজে সরে দাড়ায় । কোটাল। এ তার কেমনতরো সর্দারি । চন্দ্রহাস । সর্দারি করে না বলেই তাকে সর্দার করেছি। কোটাল। দিব্যি সহজ কাজটি তো সে পেয়েছে । চন্দ্রহাস । না ভাই, সর্দারি করা সহজ, সর্দার হওয়া সহজ নয়। গান জন্ম মোদের ত্র্যহম্পর্শে, সকল অনাস্থষ্টি । ছুটি নিলেন বৃহস্পতি, রইল শনির দৃষ্টি । অযাত্রাতে নৌকো ভাসা, রাখি নে ভাই ফলের আশা, আমাদের আর নাই যে গতি ভেসেই চলা বই ৷ দাদা, চলে। তবে, বেরিয়ে পড়ি । কোটাল। না না ঠাকুর, ওদের সঙ্গে কোথায় মরতে যাবে। মাঝি। তুমি আমাদের শোলোক শোনাও, পাড়ার মানুষ সব এল বলে। এ-সব কথা শোনা ভালো । м দাদা । না ভাই, এখান থেকে আমি নড়ছি নে । তা হলে আমরা নড়ি । পাড়ার মাহুষ আমাদের সইতে পারে না। পাড়াকে আমরা নাড়া দিই, পাড়া আমাদের তাড়া দেয়।