পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> २२ * রবীন্দ্র-রচনাবলী । ওই যে চৌপদীর গন্ধ পেয়েছে, মউমাছির গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। পাড়ার লোক । ওরে মাঝির এখানে পাঠ হবে। কে গো । তোমরাই পাঠ করবে নাকি । আমরা অন্য অনেক অসহ উৎপাত করি কিন্তু পাঠ করি নে। ওই পুণ্যের জোরেই আমরা রক্ষা পাব। পাড়ার লোক । এরা বলে কী রে । হেঁয়ালি নাকি । চন্দ্রহাস । আমরা যা নিজে বুঝি তাই বলি ; হঠাৎ হেঁয়ালি বলে ভ্রম হয়। আর তোমরা যা খুবই বোঝ দাদা তাই তোমাদের বুঝিয়ে বলবে, হঠাৎ গভীর জ্ঞানের কথা বলে মনে হবে । একজন বালকের প্রবেশ বালক। আমি পারলুম না। কিছুতে তাকে ধরতে পারলুম না। কাকে ভাই । 歌 বালক। ওই তোমরা যে-বুড়োর খোজ করছিলে তাকে । তাকে দেখেছি নাকি । বালক । সে বোধ হয় রথে চড়ে গেল । কোন দিকে। বালক। কিছুই ঠাওরাতে পারলুম না। কিন্তু তার চাকার ঘূর্ণিহাওয়ায় এখনও ধুলো উড়ছে। চল তবে চল । শুকনো পাতায় আকাশ ছেয়ে দিয়ে গেছে। [ প্রস্থান কোটাল। পাগল ! উন্মাদ পাগল ।