পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S88 রবীন্দ্র-রচনাবলী দাদা । উৎসব নাকি । তা হলে আমি পাড়ায়— চন্দ্রহাস । না, তোমাকে পাড়ায় যেতে দিচ্ছি নে । দাদা । আমাকে দরকার আছে না কি । আছে । দাদা। আমার চৌপদী— চন্দ্রহাস । তোমার চৌপদীকে আমরা এমনি রাঙিয়ে দেব ষে তার অর্থ আছে কি না আছে বোঝা দায় হবে । স্বতরাং অর্থ না থাকলে মানুষের যে দশা হয় তোমার তাই হবে । অর্থাৎ পাড়ার লোকে তোমাকে ত্যাগ করবে। কোটাল তোমাকে বলবে অবোধ । পণ্ডিত বলবে অর্বাচীন । ঘরের লোক বলবে অনাবশু্যক । বাইরের লোক বলবে অদ্ভুত । চন্দ্রহাস। আমরা তোমার মাথায় পরাব নব পল্লবের মুকুট । তোমার গলায় পরাব নব মল্লিকার মালা । পৃথিবীতে এই আমরা ছাড়া আর কেউ তোমার আদর বুঝবে না। সকলে মিলিয়া উৎসবের গান আয় রে তবে মাত রে সবে আনন্দে আজ নবীন প্রাণের বসন্তে । পিছনপানের বঁাধন হতে চল ছুটে আজ বন্যাম্রোতে, আপনাকে আজ দখিন হাওয়ায় ছড়িয়ে দে রে, দিগন্তে, আজ নবীন প্রাণের বসন্তে । বাধন যত ছিন্ন করে আনন্দে অাজ নবীন প্রাণের বসন্তে ।