পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সমাজ २२39 এক হওয়াও বিচিত্র হইবে না। হিন্দু মুসলমানে ধর্মে না-ও মিলিতে পারে, কিন্তু জনবন্ধনে মিলিবে,— আমাদের শিক্ষা আমাদের চেষ্টা আমাদের মহৎ স্বার্থ সেইদিকে অনবরত কাজ করিতেছে। অতএব যে-বেশ আমাদের জাতীয় বেশ হইবে তাহ হিন্দুমুসলমানের বেশ । যদি সত্য হয়, চাপকন পায়জামা একমাত্র মুসলমানদেরই উদ্ভাবিত সজ্জা, তথাপি এ কথা যখন স্মরণ করি, রাজপুতবীরগণ শিখসর্দারবর্গ এই বেশ পরিধান করিয়াছেন, রাণাপ্রতাপ রণজিৎসিংহ এই চাপকগন পায়জামা ব্যবহার করিয়া ইহাকে ধন্য করিয়া গিয়াছেন, তখন মিস্টার ঘোষ-বোস-মিত্র, চাটুয্যে-বাড়য্যেমুখুয্যের এ বেশ পরিতে লজ্জার কারণ কিছুই দেখি না । কিন্তু সর্বাপেক্ষ সাংঘাতিক কথা এই যে, চাপকান পায়জামা দেখিতে অতি কুত্ৰ । তর্ক যখন এইখানে আসিয়া ঠেকে তখন মানে মানে চুপ করিয়া যাওয়া শ্রেয়। কারণ রুচির তর্কের, শেষকালে প্রায় বাহুবলে আসিয়াই মীমাংসা হয় । S\రి రి (t নকলের নাকাল ইংরেজিতে একটি বচন আছে, সাব লাইম হইতে হাস্যকর অধিক দূর নহে। সংস্কৃত অলংকারে অদ্ভূতরস ইংরেজি সাব লিমিটির প্রতিশব্দ। কিন্তু অদ্ভুত দুই রকমেরই আছে– হাস্যকর অদ্ভুত এবং বিস্ময়কর অদ্ভুত । দুইদিনের জন্য দাৰ্জিলিঙে ভ্রমণ করিতে আসিয়া, এই দুই জাতের অদ্ভূত একত্র দেখা গেল । একদিকে দেবতাত্মা নগণধিরাজ, আর-একদিকে বিলাতি-কাপড়-পরা বাঙালি । সাব লাইম এবং হাস্যকর একেবারে গায়ে-গায়ে সংলগ্ন । ইংরেজি কাপড়টাই যে হাস্যকর, সে কথা আমি বলি না— বাঙালির ইংরেজি কাপড় পরাটাই যে হাস্যকর, সে-প্রসঙ্গও আমি তুলিতে চাহি না । কিন্তু বাঙালির গায়ে বিসদৃশ রকমের বিলাতি কাপড় যদি করুণরসাত্মক না হয়, তবে নিঃসন্দেহই হাস্যকর। আশা করি, এ সম্বন্ধে কাহারও সহিত মতের অনৈক্য হইবে না । হয়তো কাপড় একরকমের, টুপি একরকমের, হয়তো কলার অাছে টাই নাই, হয়তে৷ যে-রংটা ইংরেজের চক্ষে বিভীষিকা সেই রঙের কুর্তি ; হয়তে৷ যে-অঙ্গাবরণকে > ミ|〉や