পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শব্দতত্ত্ব ○ ○> স্থলবিশেষে অভিমানচ্ছলে কোনো ব্যক্তি দ্যাকামি করিতেও পারে, কিন্তু তাই বলিয়া অভিমানবশত অনিচ্ছা প্রকাশ করাকেই যে দ্যাকামি বলে তাহা নহে । আহলাদে শব্দের ব্যাখ্যা করিতে গিয়া ইনি বলেন, “দশজনের আহলাদ পাইয়া অহংকৃত। প্রশ্রয়প্রাপ্ত, অহংকৃত এবং ‘আহলাদের’-র মধ্যে যে অনেক প্রভেদ বলাই दोंछ्ळ] | হুজুগ শব্দের নিম্নলিখিত প্রাপ্ত সংজ্ঞাগুলি পরে পরে প্রকাশ করিলাম । হুজুগ ১ । বিস্ময়জনক সংবাদ যাহা সত্য কি মিথ্যা নির্ণয় করা কঠিন । ২ । অকারণ বিষয়ে উদ্যোগ ও উৎসাহ (অকারণ শব্দের দুই অর্থ– ১ অনির্দিষ্ট , ২ তুচ্ছ, সামান্ত ) ৷ ৩ । অল্পেতে নেচে ওঠার নাম । ৪ । অতিরঞ্জিত জনরব । O zje ৬ । ফল অনিশ্চিত এরূপ বিষয়ে মাত । ৭ । কোনেী-এক ঘটনা, লোকে যাহার হ্যাপায় পড়ে স্রোতে ভাসে। ‘বাজারদরে নেচে বেড়ানো ? ‘ঝড়ের আগে ধুলা উড়া । ৮ । ফস কথায় নেচে ওঠা । ৯ । দেশব্যাপী কোনো নুতন (সত্য এবং মিথ্যা ) আন্দোলন । ১ • । বাহাড়ম্বরের মত্ততা । প্রথম সংজ্ঞাটি যে ঠিক হয় নাই তাহা ব্যক্ত করিয়া বলাই বাহুল্য। দ্বিতীয় সংজ্ঞা সম্বন্ধে বক্তব্য এই যে, লেখক নিজেই অকারণ শব্দের যে-অর্থ নির্দেশ করিয়াছেন তাহা পরিষ্কার নহে। অনির্দিষ্ট অর্থাৎ যাহার লক্ষ্য স্থির হয় নাই এমন কোনো তুচ্ছ সামান্ত বিষয়কেই বোধ করি তিনি অকারণ বিষয় বলিতেছেন— র্তাহার মতে এইরূপ বিষয়ে উদ্যোগ ও উৎসাহকেই হুজুক বলে । কেহ যদি বিশেষ উদ্যোগের সহিত একটা বালুকার স্তৃপ নিৰ্মাণ করিয়া সমস্ত দিন ধরিয়া পরমোৎসাহে তাহা আবার ভাঙিতে থাকে তবে তাহাকে হুজুকে বলিবে না পাগল বলিবে ? তৃতীয় সংজ্ঞা। রাম যদি ঘুড়ি উড়াইবার প্রস্তাব শুনিবামাত্র উৎসাহে নাচিয়৷ উঠে তবে রামকে কি হুজুকে বলিবে । চতুর্থ সংজ্ঞা। অতিরঞ্জিত জনরবকে যে হুজুক বলে না তাহা আর কাহাকেও

  • মূলে মুদ্রাকরপ্রমাদ।