পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বলাকা ভাঙিয়া পড়ুক ঝড়, জাগুক তুফান, নিঃশেষ হইয়া যাক নিখিলের যত বজ্ৰবাণ । রাখে নিন্দাবাণী, রাখে। আপন সাধুত্ব অভিমন, শুধু একমনে হও পার এ প্রলয়-পারাবার নূতন স্বাক্টর উপকূলে নূতন বিজয়ধ্বজ তুলে । দুঃখেরে দেখেছি নিত্য, পাপেরে দেখেছি নানা ছলে ; অশাস্তির ঘূর্ণি দেখি জীবনের স্রোতে পলে পলে ; মৃত্যু করে লুকাচুরি সমস্ত পৃথিবী জুড়ি। ভেসে যায় তারা সরে যায় জীবনেরে করে যায় ক্ষণিক বিদ্ধপ | আজ দেখো তাহীদের অভ্ৰভেদী বিরাট স্বরূপ । তার পরে দাড়াও সম্মুখে, বলে। অকম্পিত বুকে— “তোরে নাহি করি ভয়, এ সংসারে প্রতিদিন তোরে করিয়াছি জয় । তোর চেয়ে আমি সত্য এ বিশ্বাসে প্রাণ দিব, দেখ । শান্তি সত্য, শিব সত্য, সত্য সেই চিরন্তন এক।” মৃত্যুর অস্তরে পশি’ অমৃত না পাই যদি খুজে, সত্য যদি নাহি মেলে দুঃখ সাথে যুঝে, পাপ যদি নাহি মরে যায় f আপনার প্রকাশ-লজ্জায়, অহংকার ভেঙে নাহি পড়ে আপনার অসহ সজ্জায়, তবে ঘরছাড়া সবে অন্তরের কী আশ্বাস-রবে (Cایا\