পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালের যাত্রা ) )సె সন্ন্যাসী ওই তে রথের দড়ি, যত চলে না उडझे জড়ায় । যখন চলে, দেয় মুক্তি । দ্বিতীয়া বুঝেছি আমাদের পুজে নেবেন ব’লে হত্যে দিয়ে পড়ে আছেন দড়ি-দেবতা । পুজো পেলেই হবেন তুষ্ট । প্রথমা ও ভাই, পুজো তো আনি নি। ভুল হয়েছে। তৃতীয়া পূজোর কথা তো ছিল না— ভেবেছিলেম রথের মেলায় কেবল বেচব কিনব, বাজি দেখব জাদুকরের, আর দেখব বাদর-নাচ । চল-না শিগগির, এখনো সময় আছে, আনি গে পুজো । [ সকলের প্রস্থান নাগরিকদের প্রবেশ প্রথম নাগরিক দেখ দেখ, রে, রথের দড়িটা কেমন করে পড়ে আছে । যুগযুগান্তরের দড়ি, দেশদেশাস্তরের হাত পড়েছে ওই দড়িতে, আজ অনড় হয়ে মাটি কামড়ে আছে সর্বাঙ্গ কালো ক’রে । দ্বিতীয় নাগরিক ভয় লাগছে রে । সরে দাড়া, সরে দাড়া । মনে হচ্ছে ওটা এখনি ধরবে ফণা, মারবে ছোবল । তৃতীয় নাগরিক একটু একটু নড়ছে যেন রে। জাকুবাকু করছে বুঝি।