পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী প্রভাতের অবসন্ন মেঘ তাহা, অস্ত হয়ে পড়ে দিগন্তবিচু্যত। বন্ধমুক্ত আপনারে লভিলাম স্বদুর অন্তরাকাশে, ছায়াপথ পার হয়ে গিয়ে অলোক আলোকতীর্থে সূক্ষ্মতম বিলয়ের তটে শাস্তিনিকেতন २¢|२|७१ २ ওরে চিরভিক্ষু, তোর আজন্মকালের ভিক্ষাকুলি চরিতার্থ হোক আজি, মরণের প্রসাদবহ্নিতে কামনার আবর্জনা যত, ক্ষুধিত অহমিকার উদ্ধৃবৃত্তি-সঞ্চিত জঞ্জলরাশি দগ্ধ হয়ে গিয়ে ধন্ত হোক আলোকের দানে, এ মর্তের প্রাস্তপথ দীপ্ত করে দিক, অবশেষে নিঃশেষে মিলিয়া যাক পূর্বসমূত্রের পারে অপূর্ব উদয়াচলচ্‌ড়ে অরুণকিরণতলে একদিন অমর্ত প্রভাতে । শান্তিনিকেতন ר סין הן היא \O এ জন্মের সাথে লগ্ন স্বপ্নের জটিল পুত্র ধবে ছিড়িল অদৃপ্ত ঘাতে, সে মুহূর্তে দেখিয় সম্মুখে অজ্ঞাত সুদীর্ঘ পথ অতিদূর নিঃসঙ্গের দেশে নিরাসক্ত নির্যমের পানে। অকস্মাৎ মহা-এক ডাক দিল একাকীরে প্রলয়তোরণচূড়া হতে। অসংখ্য অপরিচিত জ্যোতিষ্কের নিঃশবাতামাঝে মেলিছু নয়ন ; জানিলাম একাকীর নাই ভয়, ভয় জনতার মাঝে ; একাকীর কোনো সজা নাই,