পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালের যাত্রা ১২৫ তৃতীয় সৈনিক ও যে আমাদের কাজ নয়, তাই । ক্ষত্রিয় আমরা, শূদ্র নই, মই গোরু। চিরদিন আমরা চড়েই এসেছি রথে । চিরদিন রথ টানে ওই ওরা— যাদের নাম করতে নেই। প্রথম নাগরিক শোনো ভাই, আমার কথা । কালের অপমান করেছি আমর, তাই ঘটেছে এ-সব অনাস্থষ্টি । তৃতীয় সৈনিক এ মানুষটা আবার বলে কী। প্রথম নাগরিক ত্রেতাযুগে শূদ্র নিতে গেল ব্রাহ্মণের মান – চাইলে তপস্যা করতে, এত বড়ো আম্পর্ধা— সেদিনও অকাল লাগল দেশে, অচল হল রথ । দয়াময় রামচন্দ্রের হাতে কাটা গেল তার মাথা, তবে তো হল আপদশান্তি । দ্বিতীয় নাগরিক সেই শূদ্রর শাস্ত্র পড়ছেন আজকাল, হাত থেকে কাড়তে গেলে বলেন, আমরা কি মানুষ নই। তৃতীয় নাগরিক মানুষ নই ! বটে ! কতই শুনব কালে কালে । কোনদিন বলবে, ঢুকব দেবালয়ে। বলবে, ব্রাহ্মণক্ষত্রিয়ের সঙ্গে নাইব এক ঘাটে । প্রথম নাগরিক এর পরেও রথ যে চলছে না, সে আমাদের প্রতি দয়া করে। চললে চাকার তলায় গুড়িয়ে যেত বিশ্বব্রহ্মাণ্ড । २२|s e to