পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী পুরোহিত ছু লো, ছুলো দেখছি, ছুলো শেষে রশি ছুলো পাষণ্ডেরা। মেয়েদের ছুটিয়া প্রবেশ সকলে ছুয়ো না, ছুয়ো না, দোহাই বাবা— ও গদাধর, ও বনমালী, এমন মহাপাপ কোরো না । পৃথিবী যাবে যে রসাতলে । আমাদের স্বামী ভাই বোন ছেলে কাউকে পারব না বাচাতে । চল রে চল, দেখলেও পাপ আছে। পুরোহিত চোখ বোজো, চোখ বোজো তোমরা | ভস্ম হয়ে যাবে ক্রুদ্ধ মহাকালের মূতি দেখলে । সৈনিক এ কি, এ কি, চাকার শব্দ নাকি – না আকাশটা উঠল আর্তনাদ করে ? পুরোহিত হতেই পারে না— কিছুতেই হতে পারে না— কোনো শাস্ত্রেই লেখে না। নাগরিক নড়েছে রে, নড়েছে, ওই তো চলেছে। সৈনিক কী ধুলোই উড়ল – পৃথিবী নিশ্বাস ছাড়ছে। অন্যায়, ঘোর অন্যায় ! রথ শেষে চলল যে— পাপ, মহাপাপ । শূত্রদল জয় জয়, মহাকালনাথের জয় ! [ প্রস্থান