পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালের যাত্রা পুরোহিত তাই তো, এও দেখতে হল চোখে ! সৈনিক ঠাকুর, তুমিই হুকুম করো, ঠেকাব রথ-চলা । বৃদ্ধ হয়েছেন মহাকাল, তার বুদ্ধিভ্রংশ হল— দেখলেম সেটা স্বচক্ষে । পুরোহিত সাহস হয় না হুকুম করতে । অবশেষে জাত থোওয়াতেই বাবার যদি খেয়াল গেল এবারকার মতো চুপ করে থাকো রঞ্জুলাল। আসছে বারে ওঁকে হবেই প্রায়শ্চিত্ত করতে । হবেই, হবেই, হবেই। ওঁর দেহ শোধন করতে গঙ্গা যাবে শুকিয়ে । সৈনিক গঙ্গার দরকার হবে না। ঘড়ার ঢাকনার মতে শূত্রগুলোর মাথা দেব উড়িয়ে, ঢালব ওদের রক্ত । নাগরিক মন্ত্রীমশায়, যাও কোথায় ? মন্ত্রী যাব ওদের সঙ্গে রশি ধরতে । সৈনিক ছি ছি, ওদের হাতে হাত মেলাবে তুমি! মন্ত্রী ওরাই যে আজ পেয়েছে কালের প্রসাদ । স্পষ্টই গেল দেখা, এ মায়া নয়, নয় স্বপ্ন। এবার থেকে মান রাখতে হবে ওদের সঙ্গে সমান হয়ে । פלא צ