পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী আবাধা ছন্দে হেসে যাও সরি পাথরের মুঠি শিথিলিত করি, বঁধেছিন্দের নগরনগরী ধুলায় মিলায় পিছে। আচঞ্চলের অমৃত বরিষে চঞ্চলতার নাচে, বিশ্বলীল। তো দেখি কেবলি সে নেই নেই ক’রে আছে । ভিত ফেদে যারা তুলিছে দেয়াল তারা বিধাতার মানে না খেয়াল, তারা বুঝিল না— অনন্তকাল অচির কালেরই মেলা । বিজয়তোরণ গাথে তারা যত আপনার ভারে ভেঙে পড়ে তত, খেলা করে কাল বালকের মতো লয়ে তার ভাঙা ঢেল । ওরে মন, তুই চিন্তার টানে বাধিস নে আপনারে, এই বিশ্বের সুদূর ভাসানে অনায়াসে ভেসে যা রে । কী গেছে তোমার কী রয়েছে আর নাই ঠাই তার হিসাব রাখার, কী ঘটিতে পারে জবাব তাহার নাই বা মিলিল কোনো। ফেলিতে ফেলিতে যাহা ঠেকে হাতে তাই পরশিয়া চলো দিনে রাতে, যে সুর বাজিল মিলাতে মিলাতে তাই কান দিয়ে শোনে।