পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সেঁজুতি ভাগীরথী পূর্বযুগে, ভাগীরথী, তোমার চরণে দিল আনি মর্তের ক্ৰন্দনবাণী ; সঞ্জীবনীতপস্তায় ভগীরথ উত্তরিল দুর্গম পর্বত, নিয়ে গেল তোমা-কাছে মৃত্যুবলী প্রেতের আহ্বান— ডাক দিল, অানো আনো প্রাণ– নিবেদিল, হে চৈতন্যস্বরূপিণী তুমি, গৈরিক অঞ্চল তব চুমি তৃণে শম্পে রোমাঞ্চিত হোক মরুতল, ফলহীনে দাও ফল, পুষ্পবন্ধ্যালতিকার ঘুচাও ব্যর্থতা, নির্বাকৃ ভূমির মুখে দাও কথা। তুমি যে প্রাণের ছবি, হে জাহ্নবী— ধরণীর আদিমুপ্তি ভেঙে দিয়ে যেথা ষাও চলে জাগ্রত কল্লোলে গানে মুখরিয়া উঠে মাটির প্রাঙ্গণ, দুই তীরে জেগে ওঠে বন ; তট বেয়ে মাথা তোলে নগরনগরী জীবনের আয়োজনে ভাণ্ডার ঐশ্বর্ষে ভরি ভরি। মানুষের মুখ্যভয় মৃত্যুভয়, কেমনে করিবে তারে জয় নাহি জানে ; তাই সে হেরিছে ধ্যানে, মৃত্যুবিজয়ীর জটা হতে অক্ষয় অমৃতস্রোতে প্রতিক্ষণে নামিছ ধরায়। 8S