পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নবীন প্রথম পর্ব বাসস্তী, হে ভুবনমোহিনী, দিকপ্রাস্তে, বনপ্রান্তে, শু্যাম প্রাস্তরে, অাম্রছায়ে, সরোবরতীরে, নদীনীরে, নীল আকাশে, মলয়বাতাসে ব্যাপিল অনন্ত তব মাধুরী। নগরে গ্রামে কাননে, দিনে নিশীথে, পিকসংগীতে নৃত্যগীতকলনে বিশ্ব আনন্দিত— ভবনে ভবনে বীণাতনি রণ-রণ ঝংকৃত । মধুমদমোদিত হৃদয়ে হৃদয়ে রে নবপ্রাণ উচ্ছ্বসিল আজি, বিচলিত চিত উচ্ছলি উন্মাদন ঝন-ঝন ঝনিল মঞ্জীরে মন্ত্রীরে ॥ শুনেছ অলিমালা, ওরা ধিক্কার দিচ্ছে ওই ও পাড়ার মল্লের দল ; তোমাদের চাপল্য তাদের ভালো লাগছে না। শৈবালগুচ্ছবিলম্বী ভারী ভারী সব কালে কালে পাথরগুলোর মতো তমিশ্রগহন গাম্ভীর্ষে ওরা গুহাম্বারে ভ্ৰকুটি পুঞ্জিত করে বসে আছে । কলহান্তচঞ্চলা নিঝরিণী ওদের নিষেধ লঙ্ঘন করেই বেরিয়ে পড়ক এই আনন্দময় বিশ্বের আনন্দপ্রবাহ দিকে দিগন্তে বইয়ে দিতে, নাচে গানে কল্লোলে হিল্লোলে ; চূর্ণ চূর্ণ স্বর্ষের আলো উর্দুবেল তরঙ্গভঙ্গের অঞ্জলিবিক্ষেপে ছড়িয়ে ছড়িয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে যেতে । এই আনন্দ-মাবেগের অস্তরে অন্তরে যে অক্ষয় শৌর্যের