পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নবীন হে মাধবী, দ্বিধা কেন— আসিবে কি ফিরিবে কি— আঙিনাতে বাহিরিতে মন কেন গেল ঠেকি । বাতাসে লুকায়ে থেকে কে-যে তোরে গেছে ডেকে, পাতায় পাতায় তোরে পত্র সে-যে গেছে লেখি । কখন দখিন হতে কে দিল দুয়ার ঠেলি, চমকি উঠিল জাগি চামেলি নয়ন মেলি। বকুল পেয়েছে ছাড়া, করবী দিয়েছে সাড়া, শিরীষ শিহরি উঠে দূর হতে কারে দেখি । তুমি কোন ভাঙনের পথে এলে স্বপ্ত রাতে, আমার ভাঙল যা তাই ধন্য হল চরণপাতে। নন্দিনী, ওই দেখে নাও শিশুর লীলা, ওই-যে কচি কিশলয়— খ্যামল কোমল চিকন রূপের নবীন শোভা— দেখে যা— কল-উতরোল চঞ্চলদোল ওই-যে বোবা । শিশু হয়ে এসেছে চিরনবীন, কিশলয়ে তার ছেলেখেলা জমাবার জন্যে । হয়ে তার সঙ্গে যোগ দিল ওই সূর্যের অালো, সেও সাজল শিশু, সারাবেলা সে কেবল ঝিকিমিকি করছে। সেই তো তার কলপ্রলাপ । ওদের নাচে নাচে মুখরিত হয়ে উঠল প্রাণগীতিকার প্রথম ধুয়োটি । ওরা অকারণে চঞ্চল । ডালে ডালে দোলে বায়ুহিল্লোলে নবপল্লবদল । ছড়ায়ে ছড়ায়ে ঝিকিমিকি আলো দিকে দিকে ওরা কী খেলা খেলালো— মর্মরতানে প্রাণে ওরা আনে কৈশোরকোলাহল। ૧૭ দোসর