পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১১৪ রবীন্দ্র-রচনাবলী মহত্ত্বের গাখ পশিতেছে কানে, কেন রে বুঝি নে ভাষা ? তীর্থযাত্ৰী যত পথিকের গানে, কেন রে জাগে না আশা ? উন্নতির ধ্বজা উড়িছে বাতাসে, কেন রে নাচে না প্রাণ, নবীন কিরণ ফুটেছে আকাশে কেন রে জাগে না গান ? কেন অাছি শুয়ে, কেন আছি চেয়ে, পড়ে আছি মুখোমুখি, মানবের স্রোত চলে গান গেয়ে, জগতের স্বথে স্বর্থী । চলো দিবালোকে চলো লোকালয়ে, চলো জনকোলfহলে— মিশাব হৃদয় মানব-হৃদয়ে অসীম আকাশতলে । তরঙ্গ তুলিব তরঙ্গের পরে, নৃত্যগীত নব নব, বিশ্বের কাহিনী কোটি কণ্ঠস্বরে এক-কণ্ঠ হয়ে কৰ । মানবের স্বখ মানবের আশা বাজিবে আমার প্রাণে, শত লক্ষ কোটি মানবের ভাষা ফুটিবে আমার গানে । মানবের কাজে মানবের মাঝে আমরা পাইৰ ঠাই, বঙ্গের দুয়ারে তাই শিঙ্গা বাজে— শুনিতে পেয়েছি ভাই । মুছে ফেলো খুল, মুছ অশ্রজল, ফেলো ভিখারির চীর—