পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ꮍ Na8 রবীন্দ্র-রচনাবলী যামিনী আসিত যবে মানবের গেহে ধরণী লইত টানি, প্রাস্ত তমুগুলি আপনার বক্ষ পরে ; দুঃখপ্রম ভুলি ঘুমাত অসংখ্য জীব—জাগিত আকাশ– তাদের শিথিল অঙ্গ, স্বযুপ্ত নিশ্বাস বিভোর করিয়া দিত ধরণীর বুক ; মাতৃ-অঙ্গে সেই কোটি জীবম্পর্শস্থখ– কিছু তার পেয়েছিলে আপনার মাঝে ? যে গোপন অন্তঃপুরে জননী বিরাজে,— বিচিত্রিত যবনিকা পত্রপুষ্পজালে বিবিধ বর্ণের লেখা—তারি অন্তরালে রহিয়া অস্বৰ্ষস্পশু, নিত্য চুপে চুপে ভরিছে সস্তানগৃহ ধনধান্তরূপে জীবনে যৌবনে , সেই গৃঢ় মাতৃকক্ষে সুপ্ত ছিলে এতকাল ধরণীর বক্ষে, চিররাত্রিমুশীতল বিশ্বতি-আলয়ে ; যেথায় অনন্তকাল ঘুমায় নির্ভম্বে লক্ষ জীবনের ক্লাস্তি ধূলির শয্যায় ; নিমেষে নিমেষে যেথা ঝরে পড়ে যায় দিবসের তাপে শুষ্ক ফুল, দগ্ধ তারা, छौ*f कौङि, थांछ श्थं, फूःथ मांझ्झांब्रां । সেথা স্নিগ্ধ হস্ত দিয়ে পাপতাপরেখা মুছিয়া দিয়াছে মাতা ; দিলে আজি দেখা ধরিত্রীর সদ্যোজাত কুমারীর মতো স্বন্দর সরল শুভ্র ; হয়ে বাক্যহত চেয়ে আছ প্রভাতের জগতের পানে , যে শিশির পড়েছিল তোমার পাযাণে রাত্রিবেলা, এখন সে কঁাপিছে উল্লাসে আজাহুচুম্বিত মুক্ত কৃষ্ণ কেশপাশে ।