পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রহরী। গোবিন্দমাণিক্য । नधन ब्राँग्रे । গোবিন্দমাণিক্য । नधन ब्रॉग्नि ! গোবিন্দমাণিক্য । রবীন্দ্র-রচনাবলী প্রহরীর প্রবেশ বিপক্ষশিবির হতে পত্র আসিয়াছে। নক্ষত্রের হস্তলিপি । শাস্তির সংবাদ হবে বুঝি —এই কি স্নেহের সম্ভাষণ । এ তো নহে নক্ষত্রের ভাষা । চাহে মোর নির্বাসন, নতুবা ভাসাবে রক্তস্রোতে সোনার ত্রিপুরা—দগ্ধ করে দিবে দেশ বন্দী হবে মোগলের অন্তঃপুরতরে ত্রিপুর-রমণী ?—দেখি, দেখি, এই বটে তারি লিপি। "মহারাজ নক্ষত্রমাণিক্য !” মহারাজ ! দেখো দেখো সেনাপতি—এই দেখে! রাজদণ্ডে নির্বাসিত দিয়াছে রাজারে নির্বাসনদও। এমনি বিধির খেলা ? নির্বাসন ! এ কী স্পর্ধা। এখনো তো যুদ্ধ শেষ হয় নাই । এ তো নহে মোগলের দল । ত্রিপুরার রাজপুত্র রাজা হতে করিয়াছে সাধ, তার তরে যুদ্ধ কেন ? রাজ্যের মঙ্গল— রাজ্যের মঙ্গল হবে ? मैफ़िाहेब्रा भूथाभूषि झहे छांहे शप्न बाङ्वक जक्रा करब्र वृङ्काभूषॆौ कृब्रिরাজ্যের মঙ্গল হবে তাহে ? রাজ্যে শুধু সিংহাসন আছে,—গৃহস্থের ঘর নেই, ভাই নেই, ভ্রাতৃত্ববন্ধন নেই হেথা ? দেখি দেখি আরবার-এ কি তার লিপি । নক্ষত্রের নিজের রচনা নহে। আমি দস্থ্য, আমি দেবদেবী, আমি অবিচারী, এ রাজ্যের অকল্যাণ অামি । নহে, নহে,