পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(teు রবীন্দ্র-রচনাবলী निरङ८छ् क्रूि ठेनांग्न नोहे, कांछ बांप्लाहेब्रा भिटक८छ् किड़ **ौग्न नॉड़े, अन८खांब यांनेिब्रां জিতেছে কিন্তু উদ্যম নাই। আমাদের যে স্বস্তি ছিল তাহা ভাসাইয়া দিতেছে— তাহার পরিবর্তে যে স্বখের মরীচিকা রচনা করিতেছে তাহাও আমাদের জুস্তপ্রাপ্য । কাজ করিয়া প্রকৃত সিদ্ধি নাই কেবল অহৰ্নিশি শ্রান্তিই সার। আমার মনে হয় তার চেয়ে আমরা ছিলাম ভালো—আমাদের সেই স্নিগ্ধ কাননচ্ছায়ায়, পল্লবের মর্মর শবো, নদীর কলম্বরে, সুখের কুটিরে স্নেহশীল পিতামাতা, পতিপ্রাণা স্ত্রী, স্বজনবংসল পুত্রকন্যা, পরিবারপ্রতিম পরিচিত প্রতিবেশীদিগকে লইয়া যে নিরুপদ্রব নীড়টুকু রচনা করিয়াছিলাম, সে ছিলাম ভালো। যুরোপীয় বিরাট সভ্যতার পাষাণ-উপকরণসকল আমরা কোথায় পাইব । কোথায় সে বিপুল বল, সে শ্রাস্তিমোচন জলবায়ু, সে ধুরন্ধর প্রশস্ত ললাট । অবিশ্রাম কৰ্মানুষ্ঠান, বাধাবিয়ের সহিত অবিশ্রাম যুদ্ধ, নূতন নূতন পথের অনুসন্ধানে অবিশ্রাম ধাবন, অসন্তোষানলে অবিশ্রাম দহন—সে আমাদের এই প্রখর রৌদ্রতপ্ত আৰ্দ্ৰসিক্ত দেশে জীর্ণশীর্ণ দুর্বল দেহে পারিব কেন । কেবল আমাদের শুiমল শীতল তৃণনিবাস পরিত্যাগ করিয়া আমরা পতঙ্গের মতো উগ্র সভ্যতানলে দগ্ধ হইয়া মরিব মাত্র । বালকেরা শুনিবে এবং বৃদ্ধের বলিবে এই জন্ত তোমাদের কাছে সংক্ষেপে চিঠি প্রত্যাশা করি কিন্তু নিজে বড়ো চিঠি লিখি । অর্বাচীনদের কথা ধৈর্য ধরিয়া বেশি ক্ষণ শুনিতে পারি না, কিন্তু নিজের কথা বলিয়া তৃপ্তি হয় না—অতএব “নিজে যেরূপ ব্যবহার প্রত্যাশা কর অন্তের প্রতি সেইরূপ আচরণ করিবে” বাইবেলের এই উপদেশ অনুসারে আমার সহিত কাজ করিয়ে না—আগে হইতে সতর্ক করিয়া দিলাম। আশীৰ্বাদক ঐষষ্ঠীচরণ দেৰশর্মণঃ Uyo ঐচরণেষু তবে আর কী। তবে সমস্ত চুলায় যাক। বাংলাদেশ তাহার আম-কাঠালের বাগান এবং বঁাশঝাড়ের মধ্যে বসিয়া কেবল ঘরকন্না করিতেই থাকৃ। স্কুল উঠাইয়া দাও, সাপ্তাহিক এবং মাসিক সমৃদয় কাগজপত্র বদ্ধ করে, পৃথিবীর সকল বিষয় লইয়াই ষে আন্দোলন-আলোচনা পড়িয়া গিয়াছে সেটা বলপূর্বক স্থগিত করে, ইংরেজি পড়া ७८कदांरब्रहे बरु करद्र, दिखांन लि१ि८ग्ना न, cष जमरछ भहांग्र भांनबछांछिब्र खछ मांगनांब्र सौवन फे९नर्श कब्रिग्रांरहन ऊँीहाएमब्र हेडिहांग नफ़िाबा न, शृषिबौब ८ष नकण