পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বিতীয় খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


tఏ8 রবীক্স-রচনাবলী হরণ করিতে চাহি না, চতুর্দিকে যাহা আছে তাহাকে ঘনিষ্ঠভাবে আকৃষ্ট করিয়া গঠন করিয়া তুলিতে চাই। এই জন্ত আমাদের সমাজের মধ্যে গৃহের মধ্যে ব্যক্তিগত জীবনযাত্রার মধ্যে এমন একটা রচনার নিবিড়তা দেখিতে পাওয়া যায় । আহরণ করে মন, আর স্বজন করে আত্মা । Q যোগের সকল তথ্য জানি না, কিন্তু শুনা যায় যোগবলে যোগীরা স্বাক্ট করিতে পারিতেন । প্রতিভার স্বাক্টও সেইরূপ । কবিরা সহজ ক্ষমতাবলে মনটাকে নিরস্ত করিয়া দিয়া অৰ্ধ-অচেতনভাবে যেন একটা আত্মার আকর্ষণে ভাব-রস-দৃপ্ত-বর্ণ-ধ্বনি কেমন করিয়া সঞ্চিত করিয়া পুৰিত করিয়া জীবনে স্থগঠনে মণ্ডিত করিয়া খাড়া করিয়া তুলেন। বড়ো বড়ো লোকেরা যে বড়ো বড়ো কাজ করেন সেও এই ভাবে । যেখানকার যেটি সে যেন একটি দৈবশক্তিপ্রভাবে আকৃষ্ট হইয়া রেখায় রেখায় বর্ণে বর্ণে মিলিয়া যায়, একটি স্বসম্পন্ন স্বসম্পূর্ণ কাৰ্যরূপে দাড়াইয়া যায়। প্রকৃতির সর্বকনিষ্ঠজাত মন নামক দুরন্ত বালকটি যে একেবারে তিরস্কৃত বহিস্কৃত হয় তাহা নহে, কিন্তু সে তদপেক্ষ উচ্চতর মহত্তর প্রতিভার অমোঘ মায়ামন্ত্রবলে মুখের মতে কাজ করিয়া যায়, মনে হয় সমস্তই যেন জাছতে হইতেছে, যেন সমস্ত ঘটনা, যেন বাহ অবস্থাগুলিও, যোগবলে যথেচ্ছামতো যথাস্থানে বিন্যস্ত হইয়া যাইতেছে । গারিবান্ডি এমন করিয়া ভাঙাচোরা ইটালিকে নূতন করিয়া প্রতিষ্ঠা করেন, ওমাশিংটন অরণ্যপর্বতৰিক্ষিপ্ত আমেরিকাকে আপনার চারি দিকে টানিয়া আনিয়া একটি সাম্রাজ্যৰূপে গড়িয়া দিয়া যান । এই সমস্ত কার্য এক-একটি যোগসাধন । কবি যেমন কাব্য গঠন করেন, তানসেন যেমন তান-লয়-ছন্দে এক-একটি গান স্বাক্ট করিতেন, রমণী তেমনি আপনার জীবনটি রচনা করিয়া তোলে। তেমনি অচেতনভাবে, তেমনি মায়ামন্ত্রবলে। পিতাপুত্ৰ-ভ্রাতাভী-অতিথিঅভ্যাগতকে স্থদের বন্ধনে বাধিয়া সে আপনার চারি দিকে গঠিত সজ্জিত করিয়া তোলে, বিচিত্র छै*ांनान णहेब्रा बाफ़ शनिशू१ झाख ७रूथानि श्रृंश् निर्वॉन करब ; ८कदण श्रृंह एकन, রমণী যেখানে যায় আপনার চারি দিককে একটি সৌন্দর্ধসংযমে বাধিয়া জানে । निरजब्र ध्णोप्क्या ८क्लङ्का कथाबाडी चाकाङ्ग-हेउित्क ७को चनिर्वध्नौव्र गुन बान করে। তাহাকে বলে ঐ । ইহা তো বুদ্ধির কাজ নহে, জনির্দেশু প্রতিভার কাজ । মনের শক্তি নহে, আত্মার অভ্রান্ত নিগৃঢ় শক্তি। এই ৰে ঠিক স্বরটি ঠিক জায়গায় গিয়া লাগে, ঠিক কথাটি ঠিক জায়গায় আসিয়া বলে, ঠিক কাজটি ঠিক সময়ে নিম্পন্ন হয়।