পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


あg রবীন্দ্র-রচনাবলী দিন না ফুরাতে দেখিতে পেলে কি তারে সে মোর আগম অন্তর-পারাবারে রক্তকমল তরঙ্গে টলোমলো । দ্বিধাভরে আজো প্রবেশ কর নি ঘরে, বাহির-আঙনে করিলে সুরের খেলা, জানি না কী নিয়ে যাবে-যে দেশাস্তরে, হে অতিথি, আজি শেষবিদায়ের বেলা । প্রথম প্রভাতে সব কাজ তব ফেলে যে-গভীর বাণী শুনিবারে কাছে এলে, কোনোথানে কিছু ইশারা কি তার পেলে হে পথিক, বলো বলে,— সে-বাণী আপন গোপন প্রদীপ জেলে রক্ত-আগুনে প্রাণে মোর জলোজলে । ১৪ কার্তিক ১৩৩৫ প্রত্যাগত দূরে গিয়েছিলে চলি ; বসন্তের আনন্দভাণ্ডার তখনো হয় নি নিঃস্ব ; আমার বরণপুষ্পহার তখনো অম্লান ছিল ললাটে তোমার । হে অধীর, কোন অলিখিত লিপি দক্ষিণের উদ্ভাস্ত সমীর এনেছিল চিত্তে তব । তুমি গেলে ৰাশি লয়ে হাতে, ফিরে দেখ নাই চেয়ে আমি বসে আপন বীণাতে বঁাধিতেছিলাম স্থর গুঞ্জরিয়া বসন্তপঞ্চমে ; আমার অঙ্গনতলে আলো আর ছায়ার সংগমে কম্পমান আম্রতরু করেছিল চাঞ্চল্য বিস্তার সৌরভবিহ্বল শুরুরাতে। সেই কুঞ্জগৃহদ্বার