পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী ফিরিবার পথ নাহি ; দূর হতে যদি দেখ চাহি পরিবে না চিনিতে আমায় । হে বন্ধু, বিদায় । কোনোদিন কর্মহীন পুর্ণ অবকাশে, বসন্তবাতাসে অতীতের তীর হতে যে-রাত্রে বহিবে দীর্ঘশ্বাস, ঝরা বকুলের কান্না ব্যথিবে আকাশ, ' সেইক্ষণে খুজে দেখো, কিছু মোর পিছে রহিল সে তোমার প্রাণের প্রান্তে ; বিস্মৃতপ্রদোষে হয়তো দিবে সে জ্যোতি, হয়তো ধরিবে কভু নামহারা স্বপ্নের মুরতি। তবু সে তো স্বপ্ন নয়, সব-চেয়ে সত্য মোর, সেই মৃত্যুঞ্জয়, সে অামার প্রেম | তারে আমি রাখিয়া এলেম অপরিবর্তন অর্ঘ্য তোমার উদ্দেশে পরিবর্তনের স্রোতে আমি যাই ভেসে কালের যাত্রায় । হে বন্ধু, বিদায় । তোমার হয় নি কোনো ক্ষতি মর্ত্যের মৃত্তিক মোর, তাই দিয়ে অমৃত-মুরতি যদি স্মৃষ্টি করে থাক, তাহারি আরতি হ’ক তব সন্ধ্যাবেলা । পুজার সে-খেলা ব্যাঘাত পাবে না মোর প্রত্যহের মানস্পর্শ লেগে ; তৃষার্ত আবেগবেগে ভ্ৰষ্ট নাহি হবে তার কোনো ফুল নৈবেদ্যের থালে।