পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SoB রবীন্দ্র-রচনাবলী মনে হয় ওর হিয়া যেন ভর-ভর বিশ্বের বেদনাতে । কতবার ওর মর্মে গিয়েছি চলি, বুৰিতে পেরেছি কেন উঠে চঞ্চলি, শরৎশিশিরে যখন সে ঝলমলি শিহরায় পাতে পাতে । ভুবনে ভুবনে যে-প্রাণ সীমানাহারা গগনে গগনে সিঞ্চিল গ্ৰহতার পল্লবপুটে ধরি লয় তারি ধারা, মজ্জায় লহে ভরি। কী নিবিড় যোগ এই বাতাসের সনে, যেন সে পরশ পায় জননীর স্তনে, সে পুলকখানি কত-যে, সে মোর মনে ৰুঝিব কেমন করি। বাতাসে আকাশে আলোকের মাঝখানে— ঋতুর হাতের মায়ামস্ত্রের টানে কী-যে বাণী আছে প্রাণে প্রাণে ও-ই জানে, মন তা জানিবে কিসে । যে-ইন্দ্রজাল দ্যুলোকে ভূলোকে ছাওয়া, বুকের ভিতর লাগে ওর তারি হাওয়া,— বুঝিতে যে চাই কেমন সে ওর পাওয়া, চেয়ে থাকি অনিমিষে । ফুলের গুচ্ছে আজি ও উচ্ছ্বসিত, নিখিলবাণীর রসের পরশামুত গোপনে গোপনে পেয়েছে অপরিমিত ধরিতে না পারে তারে ।