পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহুয়া তাই তো প্রাচীন সঞ্চিত ধনে উদ্ধত অবহেলা । বলো ‘জয় জয়’, বলে ‘নাহি ভয় ;– কালের প্রয়াণপথে আসে নির্দয় নবযৌবন ভাঙনের মহারথে । চিরন্তনের চঞ্চলতায় কাপন লাগুক লতায় লতায়, থরথর করি উঠুক পরান প্রান্তরে পর্বতে । বার্তা ব্যাপিল পাতায় পাতায়,— ‘করো ত্বরা, করো ত্বরা । সাজাক পলাশ আরতিপত্র রক্তপ্রদীপে ভরা । দাড়িম্ববন প্রচুর পরাগে হোক প্ৰগলভ রক্তিমরাগে, মাধবিকা হোক সুরভিসোহাগে মধুপের মনোহরা।’ কে বঁধে শিথিল বীণর তন্ত্র কঠোর যতন ভরে,— ঝংকারি উঠে অপরিচিতার জয়সংগীতস্বরে । নগ্ন শিমুলে কার ভাণ্ডার রক্ত দুকুল দিল উপহার, দ্বিধা না রহিল বকুলের অার রিক্ত হবার তরে ।