পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


〉br8 রবীন্দ্র-রচনাবলী R আপনার কাছ হতে বহুদূরে পালাবার লাগি হে স্বন্দর, হে অলক্ষ্য, তোমার প্রসাদ আমি মাগি, তোমার আহবানবাণী। আজ তব বাজুক বঁাশরি, চিত্তভরা শ্রাবণপ্লাবনরাগে,— যেন গো পাসরি নিকটের তাপতপ্ত ঘূর্ণিবায়ে ক্ষুব্ধ কোলাহল, ধূলির নিবিড় টান পদতলে। রয়েছি নিশ্চল সারাদিন পথপাশ্বে ; বেলা হয়ে এল অবসান, ঘন হয়ে আসে ছায়া, শ্রান্ত সূর্য করিছে সন্ধান দিগন্তে অস্তিম শান্তি । দিব৷ যথা চলেছে নিভীক চিহ্নহীন সঙ্গহীন অন্ধকার পথের পথিক আপনার কাছ হতে অন্তহীন অজানার পানে অসীমের সংগীতে উদাসী,— সেইমতে আত্মদানে আমারে বাহির করো, শূন্যে শূন্যে পুর্ণ হ’ক স্বর, নিয়ে যাক পথে পথে হে অলক্ষ্য, হে মহামুদুর। २ खूलाई २०२१ আহবান আমার তরে পথের পরে কোথায় তুমি থাক সে-কথা আমি শুখাই বারে বারে । কোথায় জানি আসনখানি সাজিয়ে তুমি রাখ আমার লাগি নিভৃতে একধারে। বাতাস বেয়ে ইশারা পেয়ে গেছি মিলন-আশে শিশিরধোয় আলোতে-ছোয়া শিউলিছাওয়া ঘাসে, খুজেছি দিশা বিলোল জল-কাকলিকলভাষে অধীরধারা নদীর পারে পারে।