পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশেষ ÉE, >b”ぐ আকাশকোণে মেঘের রঙে মায়ার যেথা মেলা, তটের তলে স্বচ্ছ জলে ছায়ার ষেথা খেলা, আশথশাখে কপোত ডাকে, সেথায় সারাবেলা তোমার বঁাশি শুনেছি বারে বারে । কেমনে বুঝি আমারে খুজি কোথায় তুমি ডাক, বাজিয়া উঠে ভীষণ তব ভেরি । শরম লাগে, মন না জাগে, ছুটিয়া চলি নাকো, দ্বিধার ভরে দুয়ারে করি দেরি । ডেকেছ তুমি মানুষ যেথা পীড়িত অপমানে, আলোক যেথা নিবিয়া আসে শঙ্কাতুর প্রাণে, আমারে চাহি ডঙ্কা তব বেজেছে সেইখানে বন্দী যেথা কাদিছে কারাগারে । পাষাণ ভিত টলিছে যেথা ক্ষিতির বুক ফাটি ধুলায়-চাপ অনলশিখা কাপায়ে তোলে মাটি, নিমেষ আসি বহুযুগের বাধন ফেলে কাটি, সেথায় ভেরি বাজাও বারে বারে । s শ্রাবণ ১৩৩৪ সিঙাপুর বন্দর হ্রয়ার হে দুয়ার, তুমি আছ মুক্ত অমৃক্ষণ, রুদ্ধ শুধু অন্ধের নয়ন । অস্তরে কী আছে তাহা বোঝে না সে, তাই প্রবেশিতে সংশয় সদাই ।